মেয়াদ শেষের আগেই সরতে হচ্ছে ট্রাম্পকে!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ডোনাল্ড ট্রাম্প
ফাইল ছবি

ক্ষমতার মেয়াদ আছে আর মাত্র দুই সপ্তাহ। তবে এই সময়টুকুও হয়তো পাবেন না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার দেশটির সংসদ ক্যাপিটল হিলে সমর্থকদের তাণ্ডবের পর সাংবিধানিকভাবে অযোগ্য হতে পারেন ট্রাম্প।

এমনটি হলে এই কয়েকদিনের জন্য প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পাবেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। খবর সিএনএনের

বুধবার ক্যাপিটল-এ বিক্ষোভকারীরা ঢুকে পড়লে সেখানে জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনী পাঠাতে চাননি ট্রাম্প। পরে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট তার ক্ষমতাবলে সেখানে জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনী প্রেরণ করেন।

খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবন ‘ক্যাপিটল’ এ বিক্ষোভকারীদের ভয়াবহ তাণ্ডবের পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ২০ জানুয়ারির আগেই পদ থেকে সরিয়ে দেয়া উচিত বলে মানছেন ট্রাম্পের নিজের দল রিপাবলিকান নেতারাই।

সিএনএনকে দেয়া রিপাবলিকান নেতাদের মধ্যে চারজন ২৫তম সংশোধনীর আহ্বান জানিয়েছেন এবং দুই জন ট্রাম্পকে অভিশংসনের কথা জানিয়েছেন।

বর্তমানে রিপাবলিকান নির্বাচিত এক কর্মকর্তা বলেছেন যে, তাকে (ট্রাম্পকে) অভিংশন ও সরিয়ে দিতে হবে। সাবেক এক সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, প্রেসিডেন্টের মেয়াদ এত অল্প সময় থাকার পরও তার পদক্ষেপগুলো তাকে অপসারণের জন্য যথেষ্ট। ওই সাবেক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমি মনে করি এটি সিস্টেমের জন্য একটি বিশাল ধাক্কা। এরপরও কীভাবে আপনি এই প্রেসিডেন্টকে আরও দুই সপ্তাহের জন্য রাখবেন?’

খবরে বলা হয়েছে, বুধবার ট্রাম্প ও ট্রাম্প সমর্থকদের কর্মকাণ্ডের পর ক্ষুব্ধ কংগ্রেস ও সিনেট সদস্যরা। তারা ট্রাম্পকে অপসারণ করতে পারেন। এছাড়া কার্যকালের শেষ পর্যায়ে সিনেট ট্রাম্পকে তিরস্কার করতে পারে এবং পরবর্তীতে ফেডারেল পদে লড়ার ক্ষেত্রে অযোগ্য ঘোষণা করতে পারে।

ক্যাপিটল হিলে হামলার পর ট্রাম্পকে অপসারণের বিষয়টি বিবেচনায় নিতে আইন প্রণেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসায়ী গোষ্ঠীদের প্রধান সংস্থা। এই সংস্থার সদস্যদের মধ্যে রয়েছে এক্সন মবিল কর্প, ফিজার ইনক, টয়োটা মোটরসহ ১৪ হাজারের বেশি মার্কিন ব্যবসায়ী সংস্থা।

ওয়াশিংটন ডিসির কংগ্রেস ভবন ‘ক্যাপিটল’ এ ট্রাম্প সমর্থকদের তাণ্ডবের সময় চারজন নিহত হয়েছেন। এই তাণ্ডব সম্পর্কে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্য জানিয়েছেন ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র বাউজার।

তিনি জানান, হাউজ রুমে অধিবেশন চলাকালে কয়েকজন জোরপূর্বক প্রবেশ করে। ওই দলটির সদস্য ছিলেন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যাওয়া নারী। দলটিকে সাদা পোশাকের কয়েকজন কর্মকর্তা বাধা দেন এবং অফিসারদের একজনের গুলিতে ওই নারী মারা যান। নিহত হওয়া বাকি তিনজনের একজন নারী ও দুই জন পুরুষ। এছাড়া মেট্রো পুলিশ ডিপার্টমেন্টের অন্তত ১৪ জন সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানান তিনি।

বুধবার কংগ্রেস অধিবেশনের বিরোধিতা করে ওয়াশিংটনে জড়ো হন কয়েক হাজার ট্রাম্প সমর্থক। সেই সমাবেশে বক্তব্যে নভেম্বরের নির্বাচনে পরাজয় মেনে না নেওয়ার ঘোষণা দেন ট্রাম্প।

সমাবেশের অল্প একটু দূরে গিয়ে কয়েকশ ট্রাম্প সমর্থক ক্যাপিটল ভবনে নিরাপত্তা ব্যারিকেড ভেঙে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান। এক পর্যায়ে কংগ্রেসের অধিবেশন চলার মধ্যেই পুলিশের বাধা ভেঙে ক্যাপিটল ভবনে ঢুকে ভবনের দরজা, জানালা ভাঙচুর করে ট্রাম্প সমর্থকরা।

শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares