ঢাবির হল খোলার ব্যাপারে সরকারের সিদ্ধান্ত বহাল

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাবি উপাচার্য আখতারুজ্জামান। ছবি : সংগৃহীত

শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনির ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ১৭ মে’র আগে খুলছে না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আবাসিক হলগুলো। আর হলে ওঠার এক মাস আগে শিক্ষার্থীদের সবাইকে করোনা ভাইরাসের টিকার প্রথম ডোজ দিতে হবে।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত একাডেমিক কাউন্সিলের সভা শেষে নিজ কার্যালয় সংলগ্ন লাউঞ্জে সংবাদ সম্মেলন করে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানান উপাচার্য আখতারুজ্জামান।

অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান বলেন, আগামী ১৭ মের আগে বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো ধরনের বড় (চূড়ান্ত) পরীক্ষা হবে না। ১৭ এপ্রিলের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকার প্রথম ডোজের কার্যক্রম শেষ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ১৭ মে হলে ওঠার দুই সপ্তাহ পর পরীক্ষা ও স্বাভাবিক শ্রেণির কার্যক্রম নির্ধারণ করা হবে।

১৩ মার্চ আবাসিক হল খোলার এবং পরবর্তীতে চূড়ান্ত পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও সাম্প্রতিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তা বাতিল হয়েছে।

ঢাবি ভিসি আরও বলেন, ঢাবি হলে ওঠার ক্ষেত্রে পূর্বশর্ত হলো টিকা নিতে হবে। এক্ষেত্রে যাদের শারীরিক সমস্যা আছে, চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশনের পরিপ্রেক্ষিতে তাদের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে।

গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আবসিক হল খুলে দেয়ার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেন শিক্ষার্থীরা। সমাবেশ শেষে সকল বর্ষের জন্য হল খুলে দেয়ার দাবিতে উপাচার্যের কাছে শিক্ষার্থীরা স্মারকলিপি প্রদান করেন।

এরই মধ্যে দুপুরে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এসে আগামী ১৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর হল খোলা ও ২৪ মে থেকে পাঠদান কর্মসূচি শুরুর ঘোষণা দেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •