দীঘির বিরুদ্ধে কোটি টাকার ক্ষতিপূরণসহ প্রযোজকের দুই মামলা

বিনোদন ডেস্ক

প্রার্থনা ফারদিন দীঘি
প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। ছবি : সংগৃহিত

চলচ্চিত্রে অভিষেক হতে যাওয়া অভিনেত্রী দীঘির বিরুদ্ধে কোটি টাকার ক্ষতিপূরণসহ দুটি মামলা করেছেন তার ছবির প্রযোজক ও পরিচালক।

আজ বুধবার দুপুরে মহানগর দায়রা জজ আদালতে এ মামলা দায়ের হয়।

এর মধ্যে এক কোটি টাকার ক্ষতিপূরণের মামলা করেছেন প্রযোজক সিমি ইসলাম। একই সঙ্গে দীঘি, তার বাবা সুব্রত ও মামার নামে পৃথক আরেকটি মানহানির মামলা করেছেন নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু।

আগামী ১২ মার্চ শুক্রবার ‘তুমি আছো তুমি নেই’ ছবি মুক্তির মাধ্যমে প্রথমবারের মতো চলচ্চিত্র নায়িকা হিসেবে দীঘির অভিষেক হচ্ছে। ইতিমধ্যে ছবিটির ট্রেলার প্রকাশ পেয়েছে। ট্রেলার নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনা তৈরি হয়েছে। এ নিয়ে ট্রলের স্বীকার হন অভিনেত্রী দীঘি। পরে এ সিনেমাটি নিয়ে মন্তব্য করলে তাকে ঘিরে সমালোচনা হয়। মন্তব্যে দীঘি সিনেমাটির গল্প, নির্মাণ ও ব্যবসা নিয়ে নেতিবাচক কথা বলেছেন জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন পরিচালক। এতে ছবিটি ব্যবসায়িক ক্ষতির শিকার হবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

নির্মাতা বলেন, ট্রেলার দেখে দীঘি মন্তব্য করেছেন, এটা তার ভালো লাগেনি। এই ছবি চলবে না। ছবির গল্প, নির্মাণের দুর্বলতা নিয়ে কথা বলেছেন। গানগুলো তার ভালো লাগেনি।

ঝন্টু বলেন, একজন নায়িকা যদি ট্রেলার দেখে দর্শকদের কাছে বলে বেড়ান ছবিটি ভালো না, সেটা কে দেখবে, এটা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ছাড়া অন্য কিছু নয়। তিনি বলেন, আমি ঝন্টু, আমার ছবি নিয়ে দর্শকদের আগ্রহ আছে। আমার একাধিক ছবি ব্যবসাসফল। কার ছবি নিয়ে দীঘি কথা বলছে, এটা তার ভাবা উচিত। আমার ছবি নিয়ে কোনো ষড়যন্ত্র মানব না।

দেলোয়ার জাহান ঝন্টু জানান, পৃথিবীর ইতিহাসে দীঘির মতো কোনো অভিনেত্রীকে আর খুঁজে পাওয়া যাবে না, যে নিজের ছবির বিরুদ্ধে সরাসরি নেতিবাচক প্রচারণা করেন। টিভি ও পত্রিকায় বাজে কথা বলে বেড়ান। এই কথার পর ছবিটির অর্ধেক দর্শক কমে যাবে বলে হতাশা ব্যক্ত করেন।

ঝন্টু বলেন, আমি ও ছবিটির প্রযোজক একসঙ্গে মামলা করেছি। দীঘির মামা আমার ছবি দেখতে চেয়েছে। সে আমাকে অসম্মান করেছে। তার বাবাও সব জেনে চুপ করে আছে। এ জন্য আমরা বাধ্য হয়ে মামলার পথে এগিয়েছি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •