ইতিহাসের সর্বোচ্চ অবস্থানে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক

ডেস্ক রিপোর্ট

শেয়ার বাজার
ফাইল ছবি

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচকের বড় উত্থান হয়েছে। এতে ইতিহাসের সর্বোচ্চ অবস্থানে উঠে এসেছে ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক।

এদিন লেনদেনের শুরু থেকেই বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার প্রবণতা দেখা যায়, যা অব্যাহত থাকে লেনদেনের শেষ পর্যন্ত।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়লেও সবচেয়ে বেশি দাপট দেখিয়েছে মিউচ্যুয়াল ফান্ড। তালিকাভুক্ত ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে মাত্র একটি দরপতনের তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম বেড়েছে ৩৪টির।

মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দাম বাড়ার ইতিবাচক প্রভাব পড়ে সার্বিক শেয়ারবাজারে। ফলে দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে সব খাত মিলে ২১০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৫০টির। ১৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ায় দিনের লেনদেন শেষে ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসই-এক্স আগের দিনের তুলনায় ৫৭ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৩৬৫ পয়েন্টে উঠে এসেছে, যা ডিএসই’র ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

এর আগে ২০১৭ সালের ২৬ নভেম্বর সর্বোচ্চ অবস্থানে ছিল সূচকটি। ওই দিন সূচকটি ৬ হাজার ৩৩৬ পয়েন্টে ছিল। এরপর রোববারের আগে সূচকটি আর এ অবস্থানে পৌঁছতে পারেনি।

প্রধান মূল্যসূচকের রেকর্ডের দিনে বেড়েছে ডিএসই’র অপর দুই সূচক। এর মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক দশমিক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৩০৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই’র শরিয়াহ্ সূচক ২০ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩৭৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সূচকের এই দিনে ডিএসইতে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণও। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৭৯৩ কোটি ২ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১ হাজার ৭৮৯ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১৫২ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা এস এস স্টিলের ৫০ কোটি ৮৩ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৩২ কোটি ৭৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ফু-ওয়াং সিরামিক।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- সাইফ পাওয়ারটেক, শাইনপুকুর সিরামিক, ফাস্ট বাংলাদেশ ইনকাম ফান্ড, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, অ্যাক্টিভ ফাইন, ফরচুন সুজ এবং পাওয়ার গ্রিড।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৬০ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৭১ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩২০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৭০টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৩৭টির এবং ১৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •