দৌলতদিয়ায় পারের অপেক্ষায় ৬ শতাধিক যানবাহন

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

যানবাহনের দীর্ঘ সারি
ছবি : সংগৃহীত

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে ৬ শতাধিক যানবাহন। এসব যানবাহনের মধ্যে নৈশকোচ ও পণ্যবাহী ট্রাকের সংখ্যায় বেশি। ঘাটের অপর্যাপ্ততা, নাব্যসংকট ও ফেরি স্বল্পতার কারণে ঘাটে এই দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকালে সরেজমিনে ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ফেরিঘাট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দ ফিড মিল পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার এলাকায় ৬ শতাধিক যানবাহন ফেরি পারের অপেক্ষায় খোলা দীর্ঘ সময় ধরে অপেক্ষা করছে।

universel cardiac hospital

অপরদিকে, যানজট কমাতে ঘাট থেকে সাড়ে ১৩ কিলোমিটার পেছনে রাজবাড়ী-কুষ্টিয়া সড়কের গোয়ালন্দ মোড় থেকে রাজবাড়ীর দিকে আহলাদীপুর জুট মিল পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার এলাকায় ৩ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাককে আটকে রাখা হয়েছে।

এসব যানবাহনের মধ্যে যাত্রীবাহী বাস ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করে ফেরির দেখা পেলেও ট্রাকগুলোকে অপেক্ষা করতে হচ্ছে ২০ থেকে ২৪ ঘণ্টা। দীর্ঘ সময় ধরে খোলা আকাশের নিচে অপেক্ষা করে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে চালক ও যাত্রীদের।

যশোর বেনাপোল থেকে আসা ট্রাকচালক ইশান গোপাল সাহা বলেন, রোববার দুপুরে গোয়ালন্দ মোড়ে আসি। সারারাত খোলা আকাশের নিচে ছিলাম। ভোরের দিকে পুলিশ ঘাটের উদ্দেশ্য ছেড়ে দিলে আবার ফিড মিলের কাছে এসে আটকে যায়। এখনো আমার সামনে ৪ শতাধিক গাড়ি।

চুয়াডাঙ্গা থেকে আসা দিগন্ত পরিবহনের যাত্রী মিরাজ শেখ বলেন, আমি ভোর ৫টায় এসে ঘাট এলাকায় বাস সিরিয়ালে আটকে যায়। জরুরি একটা কাজে ঢাকা যাচ্ছিলাম। এখন দুপুর ১২টা বাজে কিন্তু ফেরিতেই উঠতে পারলাম না। সময়মতো পৌঁছাতে না পারলে আমার ব্যবসার অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শিহাব উদ্দিন বলেন, এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ঘাটে যানবাহনের ভয়াবহ চাপ বেড়েছে। বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটের অতিরিক্ত গাড়ির চাপ ও পদ্মায় নাব্যসংকটের কারণে এই যানজট সৃষ্টি হয়।

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share