সরাইলে দুই ভাগিনার ঝগড়া থামাতে গিয়ে মামা নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে দুই ভাগিনার ঝগড়া থামাতে গিয়ে খুন হয়েছেন মামা। উপজেলার সদর ইউনিয়নের সৈয়দটুলা গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার মৃত নূরুল ইসলামের পুত্র আলমগীর মিয়া তার আপন মামা একই পাড়ার মৃত আঃ সালাম মিয়ার পুত্র মাহমুদ মিয়াকে (৩৫) ছুরিকাঘাতে খুন করেন।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে সরাইল থানায় হত্যা একটি মামলা দায়ের করেছেন।

universel cardiac hospital

আজ বুধবার দুপুরে হত্যা মামলার গ্রেফতারকৃত আসামী ভাগ্নে আলমগীরকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ। এরআগে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের সৈয়দটুলা গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার মৃত নূরুল ইসলামের পুত্র আলমগীর ও আনোয়ারের মধ্যে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৭ টার দিকে পারিবারিক বিষয় নিয়ে কলহের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে তাদের আপন মামা একই পাড়ার মৃত কালা মিয়ার পুত্র ও সরাইল বিকাল বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাহমুদ মিয়া বোনের বাড়িতে যান। এ সময় মামা মাহমুদ মিয়া ভাগিনা আলমগীর ও আনোয়ার এর মধ্যকার পারিবারিক বিরোধ মিঠানোর চেষ্টাকালে এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে ভাগিনা আলমগীর ছুরি হাতে নিয়ে মামা মাহমুদ মিয়ার পেটে উপর্যপুরি আঘাত করে।

এতে গুরুতর আহত মাহমুদ মিয়াকে উদ্ধার করে দ্রুত সরাইল হাসপাতেলে নিয়ে গেলে সেখান থেকে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়, তাঁর অবস্থার অবনতি হলে জেলা সদর হাসপাতাল থেকে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা করা হয়। রাত সাড়ে ১২ টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাঁকে মৃত ঘোষনা করেন।

সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, এই ঘটনায় নিহতের ভাই থানায় বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করলে আসামী আলমগীরকে গতকাল গভীর রাতে গ্রেফতার করে পুলিশ এবং তিনি নিশ্চিত করেন ছুরিকাঘাতে মাহমুদ মিয়ার মৃত্যু হয়েছে।

শেয়ার করুন
  • 70
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    70
    Shares