ঢাবি প্রক্টর ‘আওয়ামী সন্ত্রাসীদের’ ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন: সাদা দল

ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) প্রশাসনের ‘সমর্থন ও মদদে’ ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগ হামলা করেছে বলে অভিযোগ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল। সাদা দলের শিক্ষকরা অভিযোগ করে বলেছেন, ঢাবি প্রশাসনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা (ছাত্রলীগকে) মদদ দিচ্ছেন৷ প্রশাসনের সমর্থনেই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডগুলো ঘটছে৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী ‘আওয়ামী সন্ত্রাসীদের’ ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ অক্ষুণ্ণ রাখতে উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানও কোনো পদক্ষেপ নেননি৷

আজ বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এক মানববন্ধনে বিএনপিপন্থী শিক্ষকেরা এসব অভিযোগ করেন৷ ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সন্ত্রাসী ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের দাবিতে’ এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়৷

universel cardiac hospital

শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সিনেট সদস্য মামুন আহমেদ বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও সরকার-সমর্থিত ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগবিরোধী ছাত্রসংগঠন ছাত্রদলের ওপর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে৷ বেশ কিছুদিন ধরে এই সন্ত্রাসী কার্যক্রম চললেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন (উপাচার্য, প্রক্টরিয়াল বডি, প্রক্টর) নির্লিপ্ত ছিল, কোনো ভূমিকাই পালন করেনি৷

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সাদা দলের আহ্বায়ক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য লুৎফর রহমান৷ তিনি সাদা দলের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে পাঁচ দফা দাবি তুলে ধরেন৷ এগুলো হচ্ছে ক্যাম্পাসে চলমান সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বন্ধের ব্যবস্থা নিয়ে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখা; দেশের অন্যতম বৃহৎ ছাত্রসংগঠন ছাত্রদলের বিরুদ্ধে যেসব মামলা হয়েছে, সেগুলো প্রত্যাহার; বিগত কয়েক দিনে যেসব শিক্ষার্থী ও নেতা আহত হয়েছেন, তাদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া; ক্যাম্পাসে ক্রিয়াশীল সব ছাত্রসংগঠনের প্রতি সমভাবে সংবেদনশীল থেকে নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন এবং শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান নিশ্চিত করে ক্রিয়াশীল ছাত্রসংগঠনগুলোর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে অবাধ পরিবেশ তৈরিতে কার্যকর ভূমিকা নেওয়া৷

সাদা দলের নেতা মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খানের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, এমরান কাইয়ুম, আল-আমিন প্রমুখ বক্তব্য দেন৷

শেয়ার করুন