শেষ মুহূর্তে জিএম কাদেরের পক্ষে প্রচারণায় আওয়ামী লীগ

মত ও পথ ডেস্ক

সংগৃহীত ছবি

নির্বাচনী প্রচারণার শেষ মুহূর্তে রংপুর-৩ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদেরের পক্ষে প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নগরীর বেতপট্টির দলীয় কার্যালয় থেকে বের হয়ে জিএম কাদেরের পক্ষে লাঙ্গল প্রতীকে ভোট চেয়ে লিফলেট বিতরণ করেন তারা।

universel cardiac hospital

এ সময় তারা রংপুর নগরীর জাহাজকোম্পানি মোড়, প্রেস ক্লাব চত্বর, হাড়িপট্টি, চাউল আমোদপাড়া, নবাবগঞ্জ বাজার, তালতলা রোডে প্রচারণা চালান। নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতারা লাঙ্গলের পক্ষে ভোট চান এবং নগরবাসীকে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।

এ বিষয়ে রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ডা. দেলোয়ার হোসেন বলেন, রংপুর-৩ আসনটি প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার কাছে উন্মুক্ত রাখার দাবি জানানো হয়েছিল। তবে জাতীয় রাজনীতির স্বার্থে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের এই আসনে নির্বাচন করায় চেয়ারম্যানের সম্মানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তুষার কান্তি মন্ডল প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন। এখন যেহেতু এই আসনে আওয়ামী লীগের কোনো প্রার্থী নেই, তাই আমরা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, সমর্থক ও রংপুরবাসীকে লাঙ্গল মার্কায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।

প্রচারণায় অংশ নেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল কাশেম, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ইদ্রিস আলী, রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হাসানুজ্জামান নান্নু, রুবেল, শফিকুল ইসলাম রাহেল, ইরা হক, মহানগর যুবলীগের সভাপতি এবিএম সিরাজুম মনির বাশার, সাধারণ সম্পাদক মুরাদ হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী তুহিন, রংপুর মেট্রোপলিটন কোতয়ালি থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রসিক কাউন্সিলর শাহাজাদা আরমান শাহাজাদসহ অন্য নেতারা।

এর আগে, গত ৩০ ডিসেম্বর নগরীর সেনপাড়ায় স্কাইভিউ বাসভবনে জিএম কাদেরের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন রংপুর মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা।

রংপুর-৩ (সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশনের ৯ থেকে ৩৩ নং ওয়ার্ড) আসনে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের দলীয় প্রতীক ‘লাঙ্গল’, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির আব্দুর রহমান রেজু ‘একতারা’, বাংলাদেশ কংগ্রেসের একরামুল হক ‘ডাব’, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সহিদুল ইসলাম ‘মশাল’, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির শফিউল আলম ‘আম’ এবং তৃতীয় লিঙ্গের স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ারা ইসলাম রানী ‘ঈগল’ প্রতীকে লড়ছেন।

এখানে মোট ভোটার ৪ লাখ ৯৪ হাজার ৭৬৮ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ২ লাখ ৪৭ হাজার ২৯৪ জন ও পুরুষ ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪৭২ এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ২ জন।

শেয়ার করুন