বিশেষ অপরাধের বিচার দ্রুত করতে দ্রুত বিচার আইনটি স্থায়ী করা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, রাজনৈতিক দলকে দমন করার জন্য দ্রুত বিচার আইন করা হয়নি। এ আইনের মাধ্যমে জ্বালাও-পোড়াও, সহিংসতাসহ অপরাজনীতি বন্ধ করা গেছে। তাই আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষায় বিশেষ অপরাধের বিচার দ্রুত করার জন্য আইনটি স্থায়ী করা হয়েছে। অনলাইনে আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স নবায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষে আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শতভাগ ডিজিটাল পদ্ধতিতে আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স প্রদান, নবায়ন, হালনাগাদসহ যাবতীয় ব্যবস্থাপনার উদ্দেশ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ উদ্যোগটি নিয়েছে। আজ দুপুরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

universel cardiac hospital

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। এ সময় তিনি বিএনপির কালো পতাকা মিছিল কর্মসূচি প্রসঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, সংসদের প্রথম দিনই নতুন সরকারের বিরুদ্ধে অনুমতি ছাড়া রাস্তা বন্ধ করে কালো পতাকা মিছিল করেছে বিএনপি। তাই পুলিশ তাদের সরিয়ে দিয়েছে। আর বিএনপি নেতা আবদুল মঈন খানকে ইচ্ছা করে ধাক্কা দেয়নি পুলিশ। এ ধরনের অবস্থায় ধাক্কাধাক্কি হয়েই থাকে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সরকার কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনে বাধা দেবে না। তবে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হয়, এমন কোনো কর্মকাণ্ড করতে দেবে না।

ডিজিটাল আর্মস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (ডিএএমএস) নামের সফটওয়্যারের মাধ্যমে অনলাইনে আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম চালানো হবে। এ ব্যবস্থার আওতায় আবেদনকারী ঘরে বসেই আবেদন ট্র্যাকিং করতে পারবে। লাইসেন্সধারী একটি স্মার্ট কার্ড পাবেন। এ কার্ডের মাধ্যমে লাইসেন্স-সংক্রান্ত তথ্য যাচাই করা যাবে। এ ছাড়া ডিলারদের আগ্নেয়াস্ত্র-গোলাবারুদ মজুত, আমদানি, কেনাবেচা-সংক্রান্ত সব তথ্য এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে ব্যবস্থাপনা করা হবে।

শেয়ার করুন