ফ্রান্সকে অচল করেছেন মাখোঁ, অভিযোগ লো পেনের

মত ও পথ ডেস্ক

ফ্রান্সের পার্লামেন্ট নির্বাচনের পর কোনো দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। ফলে সরকার গঠনে সৃষ্টি হয়েছে অচলাবস্থা। হাঁটতে হচ্ছে ঝুলন্ত পার্লামেন্টের দিকে। সরকার গঠনে এ অচলাবস্থার জন্য দেশটির প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁকেই দুষছেন ডানপন্থী নেতা মারিঁ লো পেন। ফ্রান্সের বামপন্থী জোট ও মাখোঁর মধ্যপন্থী জোট মিলে ডানপন্থী দলকে দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে জিতে সরকার গঠন করতে দেয়নি। খবর রয়টার্সের।

গত রোববারের এ নির্বাচনে বামপন্থী নিউ পপুলার ফ্রন্ট (এনএফপি) সবচেয়ে বেশি আসন পেলেও সরকার গঠনের মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি। সরকার গঠনের পথ স্থিতিশীল না হওয়ায় ফ্রান্সের রাজনৈতিক পরিস্থিতি অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে।

universel cardiac hospital

বামপন্থী, ডানপন্থী ও মধ্যপন্থী জোটের নেতারা সরকার গঠনের জন্য পরস্পরের সঙ্গে চুক্তিতে যেতে অসম্মতি জানানোয় পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। এ নির্বাচনের ফলে ভোটারদের মধ্যে রাজনৈতিক প্রভাব খাটানো নিয়ে দলগুলোর অভ্যন্তরেও নানা উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

যে জোটই ক্ষমতায় আসার জন্য সরকার গঠন করুক না কেন, তারা যথেষ্ট সংখ্যাগরিষ্ঠতা দেখাতে না পারলে পার্লামেন্টে দ্রুত বিরোধীদের অনাস্থা ভোটের মুখে পড়বে।

লো পেন বলেন, ‘আমরা এমন একটি পরিস্থিতির মধ্যে পড়েছি, যেখানে প্রধানমন্ত্রী কোথা থেকে আসবেন বা কোন নীতি গ্রহণ করা হবে, তা কেউ বলতে পারছেন না। তিনি নির্বাচনের আগে মাখোঁর মধ্যপন্থী জোটের সঙ্গে বামপন্থীদের চুক্তির নিন্দা করেন। তিনি অভিযোগ করেন, এই চুক্তির ফলে তার ডানপন্থী ন্যাশনাল র‌্যালি ক্ষমতায় আসতে পারেনি।’

শেয়ার করুন