সৈন্য নিহত হওয়ায় গাজায় ইসরাইলের ব্যাপক বিমান হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইসরাইলি বাহিনী শুক্রবার গাজা উপত্যকায় ব্যাপক বিমান হামলা চালিয়েছে। সীমান্ত বরাবর বন্দুকের গুলিতে এক ইসরাইলি সৈন্য নিহত হওয়ার পর তারা এ বিমান হামলা চালায়। খবর এএফপি’র।
এদিকে গাজায় হামাসের মুখপাত্র জানান, মিশর ও জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় শনিবার একটি অস্ত্রবিরতি চুক্তি হয়েছে। এতে ব্যাপক সংঘাতে আশংকা অনেকটা হ্রাস পেয়েছে।
শুক্রবার গাজায় বিমান হামলায় হামাসের তিন সদস্য নিহত হয়েছে। ইসরাইলের পক্ষ থেকে তাদের ভূখন্ডে কয়েক দফা রকেট হামলার কথা জানানো হয়েছে।
জাতিসংঘ কয়েক মাসের ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার পর ‘সীমান্ত এলাকা থেকে ফিরে যেতে’ পদক্ষেপ নিতে সকল পক্ষের প্রতি আহবান জানিয়েছে।
অপরদিকে মার্চ মাস থেকে সীমান্তবর্তী এলাকায় বিক্ষোভ ও সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৪৯ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে।
এ সময়ের মধ্যে এই প্রথম কোন ইসরাইলি সৈন্য নিহত হলো।
নিহত সৈন্যের নাম প্রকাশ না করে সামরিক বাহিনী জানায়, গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্তে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ তাকে গুলি করে।
এক মুখপাত্র এএফপি’কে বলেন, ২০১৪ সালের যুদ্ধের পর গাজা উপত্যকায় অভিযানে এই প্রথম কোন ইসরাইলি সৈন্য নিহত হলো।
পরে হামাস মুখপাত্র ফাওজি বারহৌম জানান, জাতিসংঘ ও মিশর অস্ত্রবিরতির আলোচনায় সহযোগিতা করায় আবারো অস্ত্রবিরতি চুক্তিতে পৌঁছা গেছে। তবে ইসরাইলের পক্ষ থেকে এ চুক্তি করার খবর নিশ্চিত করা হয়নি। আর এটি হচ্ছে এক সপ্তাহের মধ্যে তাদের মধ্যে করা দ্বিতীয় অস্ত্রবিরতি চুক্তি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here