নেতৃত্ব গঠনে যুব সমাজকে জায়গা করে দিতে হবে : জায়াথমা

ডেস্ক রিপোর্ট

জাতিসংঘ মহাসচিবের যুুব বিষয়ক দূত জায়াথমা বিক্রমা নায়েকে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যোগ্য নেতৃত্ব গঠনে যুব সমাজকে নিরাপদ ডিজিটাল জায়গা করে দেয়ার আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, যুব সমাজের অধিকার প্রতিষ্ঠার এবং দক্ষ নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে সকল দেশের নেতৃত্বকে আরো বেশি আন্তরিক হতে হবে। আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ঠ লক্ষ্য (এসডিজি) বাস্তবায়নে যুব সমাজকে কাজে লাগিয়ে উন্নত ও শান্তিপূর্ণ নিরাপদ বিশ্ব গঠন করতে হলে দক্ষিণ এশিয়ার যুব সমাজকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে বলে মন্তব্য করেন জয়াথমা।

সাভারের শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বিশ্ব যুব দিবস উপলক্ষে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বিশ্ব যুব দিবস ২০১৮ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন সিকদার । অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এমপি, যুব ক্রীড়া বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি জাহিদ আহসান রাসেল এমপি ও ইয়ুথ ভয়েসের পক্ষে ফাহমিদা ফায়াজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম।

জায়াথমা বিক্রমা নায়েকে বাংলাদেশের নিরাপদ সড়ক ব্যবস্থার জন্য আন্দোলনের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ছাত্রদেরকে সর্ব ক্ষেত্রে নিরাপদ সুযোগ দিতে হবে। তাদেরকে শ্ক্ষিা প্রতিষ্ঠানে ফিরিয়ে নিতে সকল মহলকে আরো বেশি আন্তরিক হতে হবে। যুব সমাজকে প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতে আরো বেশি যোগ্য ও দক্ষ করে তুলতে হবে। রোহিঙ্গা সমস্যার কথা উল্লেখ করে আরো তিনি বলেন, জাতিসংঘ অবিলম্বে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান চায় এবং ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সারাদেশে যুব সমাজকে দক্ষ ও যোগ্য করে গড়ে তোলার জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে।

জুনায়েদ আহমদ পলক বলেন, ডিজিটাল দুনিয়ায় যুব সমাজকে নিরাপদ রাখতে হবে। ইউনিয়ন পর্যায়ে ইন্টারনেট সুবিধা পেয়ে সাধারণ মানুষ আজ কর্মমুখী হয়ে ওঠেছে। এদেশে কোন যুবকই বেকার থাকবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেন, ন্যাশনাল সার্ভিসের আওতায় দেশের শত-শত যুবক চাকরি পেয়ে স্ববলম্বী হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে বীরেন সিকদার বলেন, বিশ^ শান্তি ও সামাজিক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সুন্দর পৃথিবী গড়তে যুব সমাজকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। ক্ষুধা, দারিদ্র ও সন্ত্রাসমুক্ত বিশ^ গড়তে সবাইকে কাজ করতে হবে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here