সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক

সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আর নেই। বাংলাদেশ সময় আজ রাত ৯টা ২৫ মিনিটে সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সাংবাদিকমহল সহ সমাজের সর্বস্তরে।

বাংলাদেশের সংবাদপত্রের ইতিহাসে গোলাম সারোয়ার ছিলেন কিংবদন্তিতুল্য সাংবাদিক। তিনি ছিলেন একাধারে সাংবাদিক, সাহিত্যিক ও কলাম লেখক।তাঁর সাংবাদিকতার জীবন শুরু হয় ১৯৬৩ সালে দৈনিক পয়গম দিয়ে। এরপর তিনি যুক্ত ছিলেন দৈনিক সংবাদ, দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক সমকাল এর মত শীর্ষস্থানীয় দৈনিকে। তিনি ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। ২০১৪ সালে সরকার দেশের সাংবাদিকতায় অবদানের জন্য তাকে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান একুশে পদকে ভূষিত করে। এছাড়া তিনি ২০১৬ সালে কালচারাল জার্নালিস্টস ফোরাম অব বাংলাদেশ (সিজেএফবি) আজীবন সম্মাননা এবং ২০১৭ সালে আতাউস সামাদ স্মারক ট্রাস্ট আজীবন সম্মাননা অর্জন করেন।

গোলাম সারওয়ারের জন্ম ১৯৪৩ সালের ১ এপ্রিল তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের বরিশাল জেলার বানারীপাড়ায়। তাঁর পরিবার ছিল এলাকার সম্ভ্রান্ত মুসলিম। ছোটবেলা থেকেই তাঁর লেখালেখির প্রতি আগ্রহ ছিল।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় সম্মানসহ স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন।

গোলাম সারোয়ার ইত্তেফাকে দীর্ঘ দুই যুগ কর্মরত থাকার পর ১৯৯৯ সালে দৈনিক যুগান্তরের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক হিসেবে যোগ দেন। ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠা করেন দৈনিক সমকাল। মৃত্যুকালে তিনি এই পত্রিকার সম্পাদক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি লেখালেখিতে সুনাম অর্জন করেছেন। তাঁর প্রকাশিত গন্থের মধ্যে ছড়াগ্রন্থ রঙিন বেলুন এবং প্রবন্ধ সংকলন সম্পাদকের জবানবন্দিঅমিয় গরলআমার যত কথাস্বপ্ন বেঁচে থাকউল্লেখযোগ্য।

সাংবাদিকতা ছাড়াও তিনি সেন্সর বোর্ডের আপিল বিভাগের সদস্য এবং সম্পাদকদের সংগঠন সম্পাদক পরিষদের সভাপতি দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া তিনি একাধিকবার জাতীয় প্রেসক্লাবের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৫ সালের আগস্ট মাসে তিনি বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটের (পিআইবি) চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সাংবাদিক গোলাম সারোয়ার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন- পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি। এক শোকবার্তায় তিনি বলেন- গোলাম সারোয়ার ছিলেন সাংবাদপত্রের কিংবদন্তিতুল্য মানুষ। তার মৃত্যুতে সংবাদ জগতের যে ক্ষতি হয়েছে তা পূরণ হবার নয়। আদর্শে অবিচল থেকে দুঃসময়ে বাংলা সংবাদপত্রের বিকাশ ও মুক্তচিন্তার জন্য তিনি আজন্ম লড়াই করেছেন। জাতি আজীবন শ্রদ্ধাভরে তার জীবন ও কর্মকে শ্রদ্ধা জানাবে। তিনি মরহুমের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান।

 

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here