ভুটানকে ৩-০ গোলে হারাল পাকিস্তান

ক্রীড়া ডেস্ক

যতই সময় যাচ্ছে ততই যেন নিস্তেজ হয়ে পড়ছে পাহাড় পরিবেষ্টিত ভুটানের ফুটবলাররা। আজ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে দেখা গেছে তারই চূড়ান্ত প্রতিফলন। ফলে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সাফ সুজুকি কাপে পাকিস্তানের কাছে ৩-০ গোলে পরাজিত হয়েছে ভুটান।
ম্যাচের প্রথমার্ধেই পাকিস্তানের কাছে দু’টি গোল হজম করে নেতিয়ে পড়া ভুটান। অবশ্য প্রাপ্ত সুযোগগুলো সফলভাবে কাজে লাগাতে পারলে আরো বড় ব্যবধানের লীড নিয়েই বিরতিতে যেতে পারতো পাকিস্তান। দ্বিতীয়ার্ধে আরো একটি গোল হজম করে ৩-০ ব্যবধানে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিতে হয় ভুটানকে।
ম্যাচের ১০ম মিনিটের আক্রমন থেকে গোল পেতে ব্যর্থ হওয়া পাকিস্তান প্রথম সফলতা পায় ম্যাচের ২০তম মিনিটে। সাদ্দাম হোসেনের পাস থেকে বল পেয়ে ভুটানের একজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে ডান পায়ে জোড়ালো শটে গোল করেন পাকিস্তানী মিডফিল্ডার মোহাম্মদ রিয়াজ (১-০)। ৯ মিনিট পর দ্বিগুন ব্যবধানে পৌঁছে যায় পাকিস্তান। মোহাম্মদ আলীর কাছ থেকে ডিবক্সের একেবারেই মাঝখানে বল পেয়ে সেটিকে সারাসরি শটে গোল করতে ভুল করেননি হাসান বশির (২-০)।
প্রথমার্ধে নেতিয়ে পড়া ভুটান দ্বিতীয়ার্ধে উজ্জীবিত হয়ে খেলা শুরু করে। অপরদিকে আগের অর্ধে অধিক পরিশ্রমের কারণে পরের অর্ধে বেশ ক্লান্ত হয়ে পড়ে পাকিস্তান। আর এই সুযোগে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে পাকিস্তানের বিপক্ষে বেশ কয়েকটি আক্রমণ পরিচালনা করে ভুটান।
ম্যাচের ৭১, ৭৮, ৮২ এবং ৮৭তম মিনিটে রচিত আক্রমণ থেকে গোল আদায় করতে পারেনি ভুটান। তবে শেষ মুহূর্তে এসে প্রতি আক্রমণ থেকে ঠিকই আরো একটি গোল পেয়ে যায় পাকিস্তান। ইনজুরি টাইমে (৯০+১) মোহাম্মদ আলীর আড়াআড়িভাবে দেয়া পাসের বল ফাঁকায় পেয়ে জালে জড়িয়ে দেন বদলী হিসেবে নামা মিডফিল্ডার ফাহিম আহমেদ (৩-০)। ফলে বাংলাদেশের চেয়ে অধিক ব্যবধানে ভুটানকে পরাজিত করে পাকিস্তান। গ্রুপের প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। যদিও স্বাগতিক বাংলাদেশের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে প্রথম ম্যাচে নেপালকে ২-১ গোলে হারানো পাকিস্তান। এই পরাজয়ে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিল পাহাড় পরিবেষ্টিত দেশ ভুটান।

শেয়ার করুন

universel cardiac hospital

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে