গণপিটুনি জামায়াত-বিএনপির কাজ সন্দেহ আইনমন্ত্রীর

বিশেষ প্রতিনিধি

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক
আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। ফাইল ছবি

গুজব ছড়িয়ে গণপিটুনির সাম্প্রতিক ঘটনাগুলোর সঙ্গে বিএনপি-জামায়াতের সম্পৃক্ততা রয়েছে এমন সন্দেহ প্রকাশ করে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, গণপিটুনি, ধর্ষণ, বিল্ডিংয়ে আগুন লাগার ঘটনা নিছক দুর্ঘটনা নয়। এক স্থানে এসব হলে ১০ স্থানে হয়। এসব বিএনপি-জামায়াতের নিখুঁত কাজের উদাহরণ।

সোমবার নেত্রকোণা জেলা আইনজীবী সমিতির পাঁচতলা ভবন উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে একথা বলেন আইনমন্ত্রী।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুতে মাথা লাগবে দেশে এ ধরনের একটি গুজব ছড়িয়েছিল। আর এই গুজবের কারণে দেশের বিভিন্ন জায়গায় গণপিটুনিতে হতাহতের ঘটনা ঘটছে।

পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজে ‘মানুষের মাথা লাগবে’ বলে সম্প্রতি ফেইসবুকে গুজব ছড়ানো হয়, যাতে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল সরকার। গুজব ছড়ানোর অভিযোগে বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়।

এরমধ্যে গত বৃহস্পতিবার নেত্রকোণা শহরে এক যুবকের ব্যাগ তল্লাশি করে ‘শিশুর মাথা’ পাওয়ার পর তাকে পিটিয়ে হত্যা করে এলাকাবাসী।

তারপর দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির ঘটনা ঘটে চলছে। এতে ইতোমধ্যে অন্তত ছয়জন নিহত এবং অর্ধ শতাধিক আহত হয়েছে।

এই গুজব ছড়ানোর পেছনে বিএনপির হাত রয়েছে বলে এর আগেও ইঙ্গিত করেছিলেন আওয়ামী লীগের কোনো কোনো নেতা। তবে তা ‘হাস্যকর’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন বিএনপি নেতারা।

আনিসুল হক বলেন, কেউ গুজবে কান দেবেন না। জড়িতদের আইনের হাতে তুলে দিন, যাতে আইন তার নিজস্ব গতিতে চলতে পারে। যারা নিজের হাতে আইন তুলে নেবেন, তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন আইনি ব্যবস্থা নেবে।

এসব ঘটনা প্রতিহত করতে আইনজীবীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান আইনমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আইনজীবীরা এগিয়ে আসলে আইনের প্রতি মানুষের ভরসা বাড়বে। মানুষ বিশ্বাস পাবে।

শেয়ার করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here