অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার জোড়া গোলে বিধ্বস্ত রিয়াল

ক্রীড়া ডেস্ক

চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচ। প্রতিপক্ষ আবার স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। এমন শক্তিশালী দলই কিনা বিধ্বস্ত হয় এক আর্জেন্টাইন তারকার কাছে। ৩-০ গোলের বড় জয় পায় এমবাপ্পে, কাভানি ও নেইমারহীন পিএসজি।

বুধবার রাতে ইনজুরির কারণে দলে ছিলেন না কিলিয়ান এমবাপ্পে ও এডিসন কাভানি। আর চ্যাম্পিয়নস লিগে দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা থাকায় ছিলেন না নেইমার জুনিয়রও। আক্রমণভাগের দায়িত্ব তাই নিজের কাঁধে তুলে নেন অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া। এই আর্জেন্টাইন তারকার জোড়া গোল আর যোগ করা সময়ে টমাস ম্যুনিয়েরের দুর্দান্ত ফিনিশিংয়েই রিয়াল মাদ্রিদকে উড়িয়ে দিয়েছে পিএসজি।

এদিন ঘরের মাঠ পার্ক দেস প্রিন্সেসে রিয়ালের রক্ষণকে সাদামাটা বানিয়ে ছাড়ে পিএসজি। বিশেষ করে নিষেধাজ্ঞার খাঁড়ায় থাকা অধিনায়ক সার্জিও রামোসের অভাবটা হাড়েহাড়ে টের পেয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। তার বদলে নামা মিলিতাও মৌসুমে প্রথমবারের মতো পাওয়া সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি। পুরো ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ হয়েছেন ইডেন হ্যাজার্ডও।

তবে জিদানের দলকে সবচেয়ে বেশি অবাক করেছে পিএসজির খেলার ধরন। দলের তিন মূল খেলোয়াড় না থাকার অভাবটা টেরই পেতে দেননি টমাস টুখেলের শিষ্যরা।

ম্যাচের মাত্র ১৪তম মিনিটেই রিয়ালের রক্ষণ কাঁপিয়ে গোল করে বসেন পুরোদস্তুর উইঙ্গার বনে যাওয়া ডি মারিয়া। বের্নাটের কাট-ব্যাক থেকে বল পেয়ে নিজের পুরনো ক্লাবের জালে লক্ষ্যভেদ করে স্বাগতিক দর্শকদের উদযাপনের উপলক্ষ এনে দেন এই আর্জেন্টাইন। ৩৩তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করা গোলটিও আসে মারিয়ার পা থেকেই। এক মিনিট পরেই অবশ্য গোল করেছিলেন রিয়াল স্ট্রাইকার বেল। কিন্তু ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তায় গোলটি বাতিল করে দেন মূল রেফারি।

দ্বিতীয়ার্ধে রিয়ালের রক্ষণকে আরও চেপে ধরে পিএসজি। ৫৯তম মিনিটে দারুণ দুটি সুযোগ নষ্ট করেন ইকার্দি ও ডি মারিয়া। একা পেয়েও থিবাউ কুর্তোয়াকে পরাস্ত করতে ব্যর্থ হন দুজনেই। ৭৭তম মিনিটে বেনজেমার করা গোল অফসাইডের কারণে বাতিল না হলে ব্যবধান হয়তো কমাতে পারত রিয়াল। কিন্তু সে সুযোগ না দিয়ে যোগ করা সময়ে ২ গোলে পিছিয়ে পড়া রিয়ালের কফিনে শেষ পেরেকটা ঠুকে দেন ম্যুনিয়ের।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here