ফকির শাহাবুদ্দিনের সুরের আধ্যাত্মিকতায় দর্শকদের ডুব

বিশেষ প্রতিবেদক

শাহবুদ্দিনের সুরের আধ্যাত্মিকতায় দর্শকদের ডুব

উপমহাদেশের সবচেয়ে বড় লোকসংগীতের আসর ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব’। গতকাল ১৪ নভেম্বর রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে উৎসবের পঞ্চম আসরের উদ্বোধন হয়।

আজ শুক্রবার উৎসবের দ্বিতীয় দিনে রাত ৯টা ৩০ মিনিটের দিকে মঞ্চে ওঠেন বাংলাদেশের লোকসঙ্গীত, বাউল ও সুফি গানের জনপ্রিয় শিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিন।

লালন সাইয়ের ‘আল্লাহ বলো মন রে পাখি’ গান দিয়ে নিজের পরিবেশনা শুরু করেন জনপ্রিয় এ শিল্পী। পঞ্চাশ মিনিটের পরিবেশনায় ‘একদিন মাটির ভিতরে হবে ঘর’, ‘দে দে পাল তুলে দে’, ‘আমারে আসিবার কথা কইয়া’, ‘সোনার ময়না’ সহ একের পর এক আধ্যাত্মিক গান পরিবেশন করেন।

গানের আধ্যাত্মিকতার সুরের মায়াজালে মুহূর্তের মধ্যে পুরো আর্মি স্টেডিয়াম যেন আধ্যাত্মিক জগতে ডুব দেয়। এছাড়াও একাধিক জনপ্রিয় ফোক গান পরিবেশন করেন তিনি।

বাংলাদেশের লোকসঙ্গীত, বাউল ও সুফি গানের জনপ্রিয় শিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিন। পাশাপাশি তিনি একজন গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীত গবেষক। লোকগানের কিংবদন্তী শাহ আবদুল করিমের সান্নিধ্যে আসার পর বাউল গানের দিকে ঝুঁকে পড়েন ফকির শাহাবুদ্দিন। তিন দশকের বেশি সময় ধরে বাউল সঙ্গীতের সঙ্গে জড়িত তিনি।

এ পর্যন্ত সাতটি একক অ্যালবাম এবং বেশ কয়েকটি যৌথ অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে তার। ফকির শাহাবুদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে বাউল গান নিয়ে গবেষণা করছেন। গ্রামে গ্রামে ঘুরে সংগ্রহ করেছেন প্রায় চল্লিশ থেকে পঁয়তাল্লিশ হাজার বাউল গান। বাংলা লোকসঙ্গীতকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে দেশে-বিদেশে গান করে আসছেন ফকির শাহাবুদ্দিন।

লোকগানের সুর মাধুর্য বিশ্ব দরবারে ছড়িয়ে দিতে সান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ২০১৫ সাল থেকে প্রতিবছর আয়োজন করা হচ্ছে ফোক ফেস্ট। তিন দিনব্যাপী এই লোকসংগীতের আসর প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত চলবে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here