দুই সন্তানকে গলাকেটে হত্যার পর ছাদ থেকে বাবা-মার লাফ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতে এক কারখানা মালিক ও তার স্ত্রী আটতলা বাসা থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তবে তার আগে তারা তাদের দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যা করেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এছাড়া আরও এক নারী একই সময়ে ওই ভবন থেকেই লাফ দিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় এখন হাসপাতালে ভর্তি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, দেশটির রাজধানী দিল্লির অদূরের গাজিয়াবাদ নামক এলাকায় আজ মঙ্গলবার ভোরে এই ঘটনা ঘটে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি দ্বিতীয় নারীটি ছিলেন কারখানা মালিকের ব্যবসায়িক অংশীদার। তবে অনেকে বলছেন, তিনি ছিলেন তার দ্বিতীয় স্ত্রী।

পুলিশ বলছে, ওই দম্পতির ঘরে পাওয়া একটা চিরকুটে জানা গেছে তাদের মধ্যে আর্থিক বিষয় নিয়ে টানাপোড়েন চলছিল। তারা তাদের ঘুমন্ত দুই শিশু সন্তানকে শ্বাসরোধের পর গলাকেটে হত্যা করেন। উদ্ধার হওয়া চিরকুটটির সঙ্গে কিছু টাকাও ছিল। চিরকুটে ব্যবসায়ী স্বামী লিখে গেছেন, যেন ওই টাকা দিয়ে তাদের সৎকার করা হয়।

পুলিশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা সুধীর কুমার বার্তা সংস্থা এএনআই-কে বলেন, ‘আমরা ফ্লাটের ভেতর থেকে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করি। একটি আত্মহত্যার চিরকুটও পাওয়া গেছে, সঙ্গে কিছু টাকাও ছিল। আত্মহত্যার সম্ভাব্য কারণ হতে পারে আর্থিক বিষয় নিয়ে দুজনের ঝগড়া। শিশু দুটির মধ্যে ছেলেটির ১৩ ও মেয়েটির বয়স ১১ বছর।’

পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী, ওই ব্যক্তি ব্যবসায়ে ক্ষতির মুখে পড়েছিলেন এবং সম্প্রতি বিভিন্ন ব্যাংকে তার নামে বেশ কয়েকটি চেক খারিজ হয়। বহুতল ভবনটির নিরাপত্তারক্ষী করিম খান মঙ্গলবার ভোর পাঁচটার দিকে ভবনের নিচে মাটির উপর দুটি মরদেহ একজন আহত নারীকে দেখতে পান। এছাড়া ভবনের ভেতর থেকে আওয়াজও শোনেন।

নিরাপত্তারক্ষী করিম খান বলেন, ‘ঘটানা ঘটেছে আনুমানিক ভোর ৫টা সাড়ে ৫টার দিকে । আমি কিছু শব্দ শুনতে পেয়ে বাইরে গিয়ে দেখি তিনজন মাটিতে পরে আছে। আমি তৎক্ষণাৎ আমার সুপারভাইজারকে ডাক দেই। তারপর তিনি এসে পুলিশে খবর দেন।’ প্রতিবেশীরা বলছেন, কিছুদিন আগে ওই দম্পতি সেখানে আসেন।

শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে