পদ্মা সেতুর পৌনে ৩ কিলোমিটার দৃশ্যমান

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

১৮তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর দুই হাজার ৭০০ মিটার অবকাঠামো। আজ বুধবার দুপুর ১টার দিকে মাওয়া প্রান্তের ১৭-১৮ নম্বর পিলারের ওপর ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের ধূসর রঙের স্প্যানটি বসানো হয়।

পদ্মা সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ন কবীর জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মাওয়ার কন্সট্রাকশন ইয়ার্ড-১ থেকে ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার তিয়ান-ই ভাসমান ক্রেনে করে নির্দিষ্ট স্থানে স্প্যানটি আনা হয়। পরবর্তীতে দুপুরে ১৭-১৮ নম্বরে পিলারের ওপর স্থায়ীভাবে স্থাপন করা হয়। এরপর ১৬ ও ১৭ নম্বর পিলারের স্প্যানের একটি অংশের সঙ্গে ঝালাই করা হবে। ১৭তম স্প্যান বসানোর ১৪ দিনের মাথায় বসানো হলো ১৮তম স্প্যান।

তিনি জানান, ধূসর রঙের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর মোট দুই হাজার ৭০০ মিটার দৃশ্যমান হলো।

সেতু কর্তৃপক্ষ জানায়, চলতি মাসের মধ্যেই মাওয়া ও জাজিরা প্রান্তে সেতুর ৪-সি ও ৩-এফ স্প্যান দুটি বসানোর সিডিউল রয়েছে। দেশে আসা ৩৩টি স্প্যানের মধ্যে মোট ১৮টি স্পেন বসানো হয়েছে। এর মধ্যে প্রস্তুত রয়েছে পাঁচটি ও বাকি থাকবে ১০টি স্প্যান। যা পর্যায়ক্রমে দ্রুত বসানো হবে। তাছাড়া সেতুর রোডওয়ে স্ল্যাব ও রেলওয়ে স্ল্যাবসহ অন্যান্য কাজও সিডিউল অনুযায়ী চলছে।

দেশের সর্ববৃহৎ এ প্রকল্পটি নির্মাণ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড। তারা মূল সেতুর কাজ করছে। ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে সেতুর কাজ শুরু করা হয়। ৬.১৫০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে