বসন্ত-ভালোবাসার অপেক্ষায় অমর একুশে গ্রন্থমেলা

মত ও পথ প্রতিবেদক

বসন্ত, ভালোবাসা আর ছুটির দিনের মিশেলে দ্বিতীয় শুক্রবারের অপেক্ষায় অমর একুশে গ্রন্থমেলা। বিক্রিবাট্টা তো বটেই নতুন লেখকদের নিজেদের জানানোর সুযোগও রয়েছে সেই দিনটিতে। উৎসবের দিনে বিপুল বইপ্রেমীর অপেক্ষায় রয়েছেন প্রকাশকরা।

রোববার বিকেলে প্রবেশপথের দ্বার খুলে দ্বিতীয় সপ্তাহে পথচলা শুরু করে অমর একুশে গ্রন্থমেলা। প্রথম পাঁচ দিন ধীরলয়ে এগুলেও প্রথম ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার ছিল প্রাণবন্ত বইমেলা। তবে আজ সপ্তাহের প্রথম কর্মদিনে বইমেলায় ভাটা পড়েছে বইপ্রেমীর। প্রকাশকরা অবশ্য হতাশ নন মোটেও। প্রথম সপ্তাহের বিক্রিবাট্টা নিয়ে কোনো পরিসংখ্যানে যেতে চান না তারা।

নালন্দার জুয়েল রেদুয়ানুর রহমান বলেন, অমর একুশে গ্রন্থমেলা প্রথম সপ্তাহ পার করল। এর মধ্যে টানা দুই দিন ছুটির দিনের পরে বইপ্রেমীর ভাটা পড়বে এটা খুব স্বাভাবিক। তবে দিন যত যাবে মেলা ততই সফলতার দিকে এগোবে মেলা।

অমর একুশে গ্রন্থমেলা আজ অষ্টম দিন পার করল। বই অনুরাগীর আনাগোনা কিছুটা কম হলেও পাঠকের সংখ্যা ঠিকই বেড়েছে। যারা এসেছেন তাদের প্রায় সবার হাতে বই। মেলা ঘুরে ঘুরে প্রিয় বইটি কিনেই তবে ছেড়েছেন প্রিয় প্রাঙ্গণ।

প্রকাশনা সংস্থা পার্ল-এর স্বত্বাধিকারী হাসান যায়েদী বলেন, আজ (রোববার) লোকসমাগম কম। আবার টিএসসির উল্টো দিকে যে একটি প্রবেশদ্বার রয়েছে এটি অনেকে জানেন না, ফলে এদিকে আসতে পারছেন না পাঠকেরা। এ বিষয়টি নজরে রাখা উচিত। তবে ছুটির দিনগুলোতে কিংবা উৎসবকেন্দ্রিক দিনগুলোতে প্রচুর লোকসমাগম হয় বলে  আমরা বেশ পাঠক পেয়ে থাকি। তাই দ্বিতীয় শুক্রবারের অপেক্ষায় রয়েছি।

নতুন বই

বাংলা একাডেমির জনসংযোগ উপ-বিভাগের তথ্যমতে, আজ মেলার অষ্টম দিনে নতুন বই এসেছে ১১৬টি। আর গত এক সপ্তাহে মোট বই প্রকাশিত হয়েছে ৯৫৭টি। গতকাল প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য বইগুলো হলো অন্যপ্রকাশ থেকে এসেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘তারুণ্যের আলোয়’, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স এনেছে মোনয়েম সরকারের ‘লাইফ এন্ড টাইমস অব দি ফাদার অব দি নেশন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’, পাঞ্জেরী থেকে সৈয়দ মনজুরুল ইসলামের ‘উপন্যাসত্রয়ী’, অবসর থেকে গোলাম মুরশিদের ‘রবীন্দ্রনাথের নারী-ভাবনা’,  বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত বঙ্গবন্ধু বিষয়ক বই মিল্টন বিশ্বাসের বই ‘উপন্যাসে বঙ্গবন্ধু’, মিজান পাবলিশার্স এনেছে কবীর চৌধুরীর লেখা ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বাঙালি জাতীয়তাবাদ’, অবসর এনেছে আবদুল মান্নান সৈয়দের ‘দশ দিগন্তের স্রষ্টা’, অন্বেষা থেকে এসেছে দীপন নন্দীর ‘একুশের স্মৃতি’।

মূল মঞ্চ

রোববার বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় মিল্টন বিশ্বাস রচিত ‘উপন্যাসে বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক আলোচনা। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রশান্ত মৃধা।

আনোয়ারা সৈয়দ হকের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন পাপড়ি রহমান ও মোজাফফর হোসেন। লেখকের বক্তব্য প্রদান করেন মিল্টন বিশ্বাস।

সন্ধ্যায় ছিল কবিকণ্ঠে কবিতাপাঠ, আবৃত্তি এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    4
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে