পঁচিশে বৈশাখ : রবীন্দ্রনাথের ১৫৯তম জন্মজয়ন্তীতে অনুষ্ঠান হবে অনলাইনে

বিশেষ প্রতিবেদক

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তার নিজের জন্ম নিয়ে তেমন একটা লেখেননি। শুধুমাত্র ‘হে নূতন’ গানে চির নতুনের মধ্যে দিয়ে তার নিজের পৃথিবীকে আগমনের শুভক্ষণকে ব্যক্ত করেছিলেন।

যেখানে তিনি বলেন, ‘তোমার প্রকাশ হোক কুহেলিকা করি উদ্ঘাটন/সূর্যের মতন।/রিক্ততার বক্ষ ভেদি আপনারে করো উন্মোচন।/উদয়দিগন্তে ওই শুভ্র শঙ্খ বাজে/মোর চিত্তমাঝে/চির-নূতনেরে দিল ডাক/পঁচিশে বৈশাখ।’

আজ পঁচিশে বৈশাখ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯তম জন্মজয়ন্তী। বাংলার ঘরে সুখ-দুঃখের এক প্রদীপ হয়ে জন্ম নিয়ে তিনি উদ্ভাসিত করেছেন বিশ্বকেও। বাঙালি এখনও দিশাহীনতার মধ্যে পথ খুঁজে পেতে চায় রবীন্দ্রনাথে।

আজ থেকে ১৫৯ বছর আগে অর্থাৎ বাংলা ১২৬৮ সালের ২৫ বৈশাখে (৭ মে, ১৮৬১ খৃস্টাব্দ) মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর ও সারদা দেবীর চতুর্দশ সন্তান রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্ম হয় কলকাতার বিখ্যাত জোড়াসাঁকোর ঠাকুর পরিবারে।

বাল্যকাল থেকেই সৃজনপ্রতিভায় অনন্য রবীন্দ্রনাথ বাংলা সাহিত্যকে তিনি দিয়ে গেছেন এক নতুন মাত্রা। তার রচিত সঙ্গীত, কবিতা ও গদ্য জড়িয়ে রয়েছে বাঙালির সত্তাজুড়ে।

১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলী কাব্যের জন্য নোবেল পুরস্কার জয়ের মধ্য দিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা সাহিত্যকে বিশ্বসাহিত্যে মর্যাদাপূর্ণ আসনে অধিষ্ঠিত করেন। বাংলা ভাষায় এটিই এখনো সাহিত্যে একমাত্র নোবেল পুরস্কার।

সমাজকল্যাণমূলক, শিক্ষাবিস্তার, কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নসহ রবীন্দ্রনাথের জনকল্যাণমূলক কাজগুলোও অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে আছে আজও।

বিভিন্ন সঙ্কটে রবীন্দ্রনাথের গান ও কবিতা বাঙালিকে যুগিয়েছে সাহস, তার চেতনাকে করেছে শাণিত। তার লেখা গান ‘আমার সোনার বাংলা’ বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচনা পরিমাণে বিপুল, বিষয়ে বৈচিত্র্যময়। সাহিত্যের প্রতিটি শাখাই সমৃদ্ধ হয়েছে তার মেধা-মনন-সৃজনশীলতায়।

অনলাইনে হবে অনুষ্ঠান

বৈশ্বিক মহামারী নভেল করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হচ্ছে। ফলে বিভিন্ন উৎসব জনসমাগম এড়িয়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে উদযাপনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

রবীন্দ্রনাথের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় প্রায় ৫৫ মিনিটের একটি অনুষ্ঠান নির্মাণ করেছে। এটি দেশের বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচারিত হবে।

এছাড়া ছায়ানট আয়োজন করেছে ‘ওই মহামানব আসে’ শীর্ষক অনুষ্ঠান। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় ছায়ানট সভাপতি সনজীদা খাতুনের গ্রন্থনায় ইউটিউব চ্যানেল www.bit.ly/chhayanaut দেখা যাবে এই অনুষ্ঠান।

অনলাইনে যৌথভাবে রবীণ্দ্রনাথের ১৫৯তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন করবে উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ও ভারতের ক্যালকাটা কয়্যার। শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত উদীচীর ফেসবুক পেজ www.facebook.com/udichibd এই অনুষ্ঠানমালা দেখা যাবে।

এছাড়া ইন্দিরা গান্ধী সংস্কৃতি কেন্দ্র (আইজিসিসি) ‘ট্রিবিউট টু রবীন্দ্রনাথ টেগোর: এ রে অব হোপ থট টেগোরস ফিলোসফি’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ফেসবুকে আইজিসিসির পেজে www.facebook.com/IndiraGandhiCulturalCentre অনুষ্ঠানটি শুরু হবে।

শেয়ার করুন
  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    13
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে