ভুয়া রিপোর্ট প্রদান: জেকেজির করোনা পরীক্ষার অনুমোদন বাতিল

ডেস্ক রিপোর্ট

নিয়ম বহির্ভূত কর্মকাণ্ড ও ভুল রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগ আসার পর রাজধানীর গুলশানের জেকেজি হেলথ কেয়ারকে দেয়া করোনার নমুনা সংগ্রহ, পরীক্ষা, বুথ স্থাপন ও প্রশিক্ষণের সব অনুমতি বাতিল করল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বুধবার (২৪ জুন) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক দাপ্তরিক আদেশে এই অনুমতি বাতিলের কথা জানানো হয়।

গত এপ্রিলে দেশে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার জন্য অনুমতি পায় জোবেদা খাতুন সার্বজনীন স্বাস্থ্য সেবা (জেকেজি) হেলথ কেয়ার। জেকেজি বিনামূল্যে নমুনা সংগ্রহের জন্য ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের পৃথক ছয়টি স্থানে ৪৪টি বুথ স্থাপন করে। এসব এলাকা থেকে প্রতিদিন ৩০০ থেকে ৩৫০ জনের নমুনা সংগ্রহ করতো জেকেজি। শর্ত ছিল, সরকার নির্ধারিত করোনা শনাক্তকরণ ল্যাবরেটরিতে নমুনা পাঠাতে হবে। কিন্তু ওভাল গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে অভিযোগ উঠে সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত তারা পরীক্ষার জন্য নিয়েছে। অনুমতি না থাকলেও বাসায় গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করেছে। সরকারি তিতুমীর কলেজের স্টাফদের ওপর হামলার অভিযোগও আছে এই প্রতিষ্ঠানটির কর্মীদের বিরুদ্ধে।

সবশেষ মঙ্গলবার করোনার উপসর্গ থাকা রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে কোনো ধরনের পরীক্ষা ছাড়াই ভুয়া রিপোর্ট প্রদানকারী প্রতারক চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে আরিফুল চৌধুরী জেকেজির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। আর হুমায়ুন কবীর ও তানজিনা দম্পতি জেকেজির সাবেক স্টাফ।

এদিকে জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরীর কাছে তার প্রতিষ্ঠানের বিষয়ে জানতে চাইলে গণমাধ্যমের কাছে দাবি করেছেন, ‘আদর্শের সঙ্গে না মেলায় এক মাস আগে তিনি জেকেজি ছেড়ে চলে এসেছেন।’

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে