চীনে নতুন ভাইরাসের সন্ধান, মহামারির শঙ্কা বিজ্ঞানীদের!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেই চীনে নতুন একটু ফ্লু ভাইরাসের সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এই ভাইরাসটি বহন করে শূকর। তবে এটি মানুষকেও আক্রান্ত করতে পারে। এই ভাইরাসটি মহামারি হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তারা।

চীনা বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা করছেন, মানুষ থেকে মানুষে সহজে ছড়িয়ে পড়তে ভাইরাসটি আরও অভিযোজিত হয়ে উঠতে পারে আর বিশ্বজুড়ে নতুন মহামারিতে পরিণত হতে পারে। খবর বিবিসির।

বিজ্ঞানীরা চীনে ফ্লুর যে নতুন স্ট্রেইনটি শনাক্ত করেছেন তা ২০০৯ সালের সোয়াইন ফ্লু ভাইরাসের মতো হলেও এর মধ্যে নতুন কিছু পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে। এ কারণেই শঙ্কিত বিজ্ঞানীরা।

যুক্তরাজ্যের নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত প্রফেসর কিন-চো চ্যাং বলেছেন, ‘এই মুহূর্তে আমরা করোনাভাইরাস নিয়ে বিক্ষিপ্ত হয়ে রয়েছি এবং সেটাই সঠিক। কিন্তু আমাদের অবশ্যই নতুন ভাইরাসের ওপর নজর রাখতে হবে এবং কোনোভাবেই অবহেলা করা উচিত হবে না।’

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ‌‘মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার মতো সব ধরনের চিহ্ন ভাইরাসটির মধ্যে দেখা যাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে আমাদের নিবিড় পর্যবেক্ষণ প্রয়োজন। কেননা নতুন ফ্লু স্ট্রেইন হওয়ায় এর বিরুদ্ধে মানুষের খুব সামান্য কিংবা একেবারে কোনো ধরনের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা না থাকার সম্ভাবনাই বেশি।’

নতুন এই ফ্লু ভাইরাসটিকে গবেষকেরা জি৪ইএএইচ১এন১ নামে অভিহিত করছেন। এটি মানুষের শ্বাসযন্ত্রের মধ্যে বেড়ে উঠতে এবং বিস্তার ঘটাতে পারে। গবেষকেরা প্রমাণ দেখতে পেয়েছেন যে, এই ভাইরাসটি সম্প্রতি সেইসব মানুষকে আক্রান্ত করা শুরু করেছে যারা চীনের শূকর এবং কসাইখানা ইন্ড্রাস্টিতে কাজ করছেন।

বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার নেয়া করোনাভাইরাস উৎপত্তি চীন থেকে হয়েছে বলে মনে করা হয়। গত ছয় মাস করোনা মহামারিতে স্তব্ধ হয়ে গেছে গোটা বিশ্ব। এখন পর্যন্ত এক কোটির বেশি লোক আক্রান্ত এবং ৫ লাখের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে।

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর বিজ্ঞানীরা জানিয়েছিলেন, এমন অনেক ভাইরাস বন্যপ্রাণীদের মধ্যে সুপ্ত হয়ে আছে। যেকোনো সময় তা ছড়িয়ে পড়তে পারে। এসব ভাইরাসের মোকাবেলায় এখনই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার তাগিদ দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

শেয়ার করুন
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে