বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি : ময়ূর-২ লঞ্চের দুই চালক গ্রেফতার

মত ও পথ প্রতিবেদক

সদরঘাটে লঞ্চ দুর্ঘটনার মামলার এজাহারভুক্ত আসামি এমভি ময়ূর-২ লঞ্চের দুই ইঞ্জিনচালককে গ্রেফতার করেছে নৌপুলিশ। তারা হলেন- শিপন হাওলাদার ও শাকিল। বুধবার সকালে রাজধানীর সূত্রাপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

নৌপুলিশের ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) খন্দকার ফরিদুল ইসলাম মত ও পথকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গ্রেফতার দুইজনই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নৌপুলিশের গোয়েন্দা ইউনিট তাদের গ্রেফতার করে।

এর আগে গত ২৯ জুন সকালে এ লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। এদিন ঢাকা-চাঁদপুর রুটের ময়ূর-২ নামের একটি লঞ্চের ধাক্কায় ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ রুটের মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় ৩৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, মুন্সিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা দুইতলা মর্নিং বার্ড লঞ্চটি সদরঘাট কাঠপট্টি ঘাটে ভেড়ানোর আগমুহূর্তে চাঁদপুরগামী ময়ূর-২ লঞ্চটি ধাক্কা দেয়। এতে সঙ্গে সঙ্গে তুলনামূলক ছোট মর্নিং বার্ড লঞ্চটি ডুবে যায়।

মনিং বার্ডকে ধাক্কা দিয়ে ডুবিয়ে দেয়ার সময় ময়ূর-২ লঞ্চের মূল মাস্টার নয়, একজন শিক্ষানবিশ চালাচ্ছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া লঞ্চের কোনো ত্রুটি নয়, মাস্টারের ভুলে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

লঞ্চডুবির ঘটনায় অবহেলাজনিত হত্যার অভিযোগ এনে সাতজনের বিরুদ্ধে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। এ ঘটনায় গত রোববার (১২ জুলাই) রাতে দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ এলাকা থেকে ময়ূর-২ লঞ্চের মাস্টার আবুল বাশার মোল্লাকে গ্রেফতার করে র‍্যাব।

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে