২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হলেন কাজী অনিক

ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ায় দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ হলেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার কাজী অনিক ইসলাম। নিজের ভুল শিকার করে শাস্তি মেনে নিয়েছেন বাঁ-হাতি এ পেসার।

রোববার সন্ধ্যায় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মাদক বিরোধী নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগে কাজী অনিককে নিষিদ্ধ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

বিসিবির পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, এক ধরনের ওষুধ সেবনের মাধ্যমে বিসিবির এন্টি ডোপিং কোডের ৮.৩ নম্বর ধারা ভঙ্গ করেছেন কাজী অনিক।

২০১৮ সালের ৬ নভেম্বর কক্সবাজারে ডোপ টেস্ট করা হয় ঢাকা মেট্রোর হয়ে জাতীয় লিগে খেলতে থাকা কাজী অনিকের। তার সেই ফলাফল পজিটিভ আসে। ২০১৯ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে তার শাস্তির মেয়াদ কার্যকর ধরা হচ্ছে। ২০২১ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি মাঠে ফিরতে পারবেন তিনি। তার আগে পেশাদার কোনো ক্রিকেটে অংশ নিতে পারবেন না।

তরুণ সম্ভাবনাময় এই পেসার ২০১৮ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছিলেন। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) চিটাগং ভাইকিংস, রাজশাহী কিংস ও ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে খেলেছেন। জাতীয় লিগে ঢাকা মেট্রো এবং ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মোহামেডানের হয়ে খেলেছেন অনিক।

২১ বছর বয়সী কাজী অনিক প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে মাত্র ৪ ম্যাচ খেলে ১৫ উইকেট শিকার করেন। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ২৬ ম্যাচে শিকার করেন ৪১ উইকেট। আর টি-টেয়েন্টির সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে ৯ ম্যাচে শিকার করেন ১১ উইকেট।

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে