নাসিমের শূন্য আসনে ভোট পরবর্তী ৯০ দিনে : ইসি

মত ও পথ প্রতিবেদক

সংবিধান অনুযায়ী কোনো আসন শূন্য হলে সেখানে ৯০ দিনের মধ্যে উপ-নির্বাচনের বিধান রয়েছে। কিন্তু সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া সিরাজগঞ্জ-১ আসনে উপ-নির্বাচন ৯০ দিনের মধ্যে হচ্ছে না।

দৈব-দুর্বিপাক দেখা দিলে শূন্য আসনে ভোটের জন্য আরও ৯০ দিন সময় নেয়ার বিধান আছে সংবিধানে। দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা ‘দৈব-দুর্বিপাক’ মনে করায় পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করা হবে সিরাজগঞ্জ-১ আসনে।

২৭ জুলাই নির্বাচন কমিশনের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছেন।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, জাতীয় সংসদ সচিবালয় থেকে ১৬ জুন জারি করা ও ১৭ জুন গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক জাতীয় সংসদের সিরাজগঞ্জ-১ আসনটি ১৩ জুন শূন্য হওয়ায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১২৩-এর ৪ দফা অনুযায়ী, এই শূন্য পদ পূরণ করার জন্য ১০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের বিধান রয়েছে।

সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১২৩ এর ৪ দফার শর্তানুসারে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের মতে, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণজনিত দৈব-দুর্বিপাকের কারণে এই দফার নির্ধারিত মেয়াদ অর্থাৎ শূন্য হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে উল্লিখিত শূন্য আসনের নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব হবে না। এ অবস্থায় সিরাজগঞ্জ-১ শূন্য আসনের নির্বাচন নির্ধারিত মেয়াদের মধ্যে অনুষ্ঠান সম্ভব না হওয়ায় পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের সময়সূচি যথাসময়ে ঘোষণা করা হবে।

গত ১৩ জুন ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন আওয়ামী লীগের প্রবীণ রাজনীতিবিদ নাসিম। তিনি সিরাজগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন। তার প্রয়াণের পর ১৮ জুন আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়।

শেয়ার করুন
  • 20
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    20
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে