পিকে হালদারের বিরুদ্ধে ইন্টারপোলের রেড অ্যালার্ট জারি

পিকে হালদার

প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে বিদেশে থাকা এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদারের (পিকে) বিরুদ্ধে রেড অ্যালার্ট জারি করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল পুলিশ অর্গানাইজেশন-ইন্টারপোল।

শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) এ নোটিশ জারি করা হয় বলে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

সদর দপ্তরের এআই‌জি (মি‌ডিয়া এন্ড পাব‌লিক রি‌লেশন্স) মো. সো‌হেল রানা জানান, বাংলাদেশ পু‌লি‌শের ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরো (এনসিবি), অর্থাৎ ইন্টারপোলের ঢাকা শাখার অনুরোধে ইন্টারপোল এ রেড নোটিশ জারি করে।

তিনি আরও জানান, ইন্টার‌পো‌লের কে‌ন্দ্রিয় ও‌য়েবসাই‌টে প্রকা‌শের পাশাপা‌শি সারা‌বি‌শ্বে বি‌ভিন্ন দে‌শে ইন্টার‌পো‌লের শাখা সমূ‌হেও পাঠানো হ‌য়ে‌ছে এই রেড নো‌টিশ। এ‌টি আগামী পাঁঁচ বছ‌রের জন্য জারি থাক‌বে। ত‌বে, প্র‌য়োজ‌নে আ‌বেদ‌নের প্রে‌ক্ষি‌তে মেয়াদ নবায়ন যোগ্য।

এর আগে গত মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) পুলিশ সদর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছিল, পিকে হালদারকে ধরতে তার বিরুদ্ধে ইন্টারপোলে রেড নোটিশ জারির আবেদন পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ পু‌লি‌শের ইন্টার‌পোল শাখা যথাযথ প্র‌ক্রিয়া অনুসরণ ক‌রে প্র‌য়োজনীয় সকল ডকু‌মেন্টস ও সা‌পো‌র্টিং এ‌লি‌মেন্টস সহকা‌রে ইন্টার‌পোল সদরদপ্ত‌রে আ‌বেদন‌টি পাঠায়। ইন্টার‌পো‌লের এক‌টি বি‌শেষ ক‌মি‌টি আ‌বেদন ও এর সাঙ্গে সংযুক্ত ডকু‌মেন্টস ও কাগজপত্র পর্যা‌লোচনা ক‌রে আবেদন‌টি অনু‌মোদন ক‌রে।

গত বছর দুদক অবৈধ ক্যাসিনো মালিকদের সম্পদের তদন্ত শুরু করলে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠে আসে। চলতি বছর ৮ জানুয়ারি প্রায় ২৭৪ কোটি ৯১ লাখ টাকার সম্পত্তি অর্জনের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি।

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকেই এক হাজার ৫০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে সব মিলিয়ে প্রায় তিন হাজার ৫০০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করার প্রাথমিক প্রমাণ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন।

গত বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি অর্থপাচার মামলায় পিকে হালদার ও তার পরিবারের ৮ সদস্যসহ পিপলস লিজিংয়ের ১২ জনের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ, ব্যাংক হিসাব ও পাসপোর্ট জব্দ রাখার আদেশ আপিল বিভাগে বহাল থাকে।

বিদেশে পলাতক পিকে হালদারের একাধিক বান্ধবীর নামে ৭০-৮০টি অ্যাকাউন্টে অর্থ পাচারের প্রমাণ পেয়েছে দুদক। তার বিরুদ্ধে অর্থপাচার ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলাও করা হয়েছে।

পি কে হালাদারের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা থাকায় গত সোমবার পি কে হালদারের ঘনিষ্ঠজন শঙ্খ বেপারীর তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। তার নামে পি কে হালদারের একটি ফ্ল্যাট রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares