ইউক্রেন-রাশিয়া পরিস্থিতি: শস্য রপ্তানি চুক্তির মেয়াদ বাড়ল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

কৃষ্ণসাগরের বন্দরগুলো দিয়ে শস্য রপ্তানি চুক্তি ঘিরে যে আশঙ্কা ছিল, তা কেটে গেছে। ইউক্রেন থেকে খাদ্যশস্য রপ্তানির চুক্তির মেয়াদ আরও চার মাস বাড়ানো হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার এ ঘোষণা আসে। আগামী শনিবার চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল। এর আগেই চুক্তিটি নবায়ন করতে সম্মত হয়েছে রাশিয়া। রয়টার্স ও বিবিসির।

ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের পর থেকে বিশ্বজুড়ে খাদ্যের দাম বেড়ে গেছে। শস্য ও তেলবীজ উৎপাদনকারী অন্যতম দেশ ইউক্রেন। কিন্তু যুদ্ধ শুরুর পর থেকে ইউক্রেনের বন্দরগুলো দিয়ে শস্য রপ্তানি বন্ধ হয়ে যায়। গত জুলাই মাসে তুরস্ক ও জাতিসংঘের প্রচেষ্টায় রাশিয়া ওই ইউক্রেনের মধ্যে বন্দরগুলো দিয়ে শস্য রপ্তানি চুক্তি সম্পন্ন হয়।

universel cardiac hospital

এর আওতায় বিশ্বজুড়ে খাদ্যঘাটতি পূরণে সমুদ্রপথে একটি নিরাপদ করিডর তৈরির কথা বলা হয়। এতে ইউক্রেনের তিনটি বন্দর থেকে নিরাপদে শস্য রপ্তানির পথ খুলে যায়।

চুক্তির পর থেকে এই নৌপথ ব্যবহার করে ১ কোটি ১১ লাখ টন কৃষিপণ্য রপ্তানি করা হয়েছে। এর মধ্যে ৪৫ লাখ টন খাদ্যশস্য রয়েছে। মোট রপ্তানির মধ্যে ২৯ শতাংশ অর্থাৎ ৩২ লাখ টন গম রপ্তানি হয়েছে। এর বাইরে সূর্যমুখী তেল, খাদ্যদ্রব্য, বার্লি প্রভৃতি রপ্তানি হয়েছে।

চুক্তি নবায়নের আগে জাতিসংঘ ও ইউক্রেনের চাওয়া ছিল ভিন্ন। তারা চাইছিল চুক্তির মেয়াদ কমপক্ষে এক বছর করা হোক। কিন্তু রাশিয়া তাতে সম্মত হয়নি। ইউক্রেনের পক্ষ থেকে অন্য বন্দরগুলো ব্যবহার করতে দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছিল। কিন্তু তাতেও মস্কোর সাড়া মেলেনি। বর্তমানে ওদেসা, ক্রোনমোরস্ক ও পিভদেয়ানি বন্দর দিয়ে মাসে ৩০ লাখ টন খাদ্যশস্য রপ্তানি করা সম্ভব হচ্ছে।

শেয়ার করুন