মরণোত্তর অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এই তারকারা

বিনোদন ডেস্ক

 

মরণোত্তর অঙ্গদান সারা পৃথিবীতেই মহৎ দান হিসেবে স্বীকৃত। যে কোনও প্রগতিশীল সমাজ যখন অঙ্গদানে উৎসাহ যোগাচ্ছে তখন বলিউড তারকারাই বা পিছিয়ে থাকবেন কেন। অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অনেক তারকাই। ছবিতে দেখুন এমন কয়েকজন।যারা মরণোত্তর অঙ্গদান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

ঐশ্বরিয়া রাই:

বলিউডে সবচেয়ে গ্ল্যামারাস অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। তাঁর গ্ল্যামারের ছটা বলিউডের গন্ডি পেরিয়ে ছড়িয়ে পড়েছে হলিউডেও। কান-এর রেড কার্পেটে তাঁর দাপুটে পারফরম্যান্স তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করে গোটা বিশ্ব। এই নীল নয়না সুন্দরী তাঁর চোখ দু’টিকেই দান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

কৃতী শ্যানন:

বলিউডে নবাগতাদের মধ্যে ইতিমধ্যেই বেশ জনপ্রিয় কৃতী শ্যানন। মরণোত্তর অঙ্গদানে খুবই আগ্রহী ‘হিরোপান্তি’ নায়িকা। তিনিও তাঁর চোখ দান করতে চান। নায়িকা বলেছেন, ‘‘বহু বছর ধরেই এই সিদ্ধান্তের কথা ভেবেছি। নিজের চোখ দিয়ে গোটা বিশ্বকে দেখতে পাওয়াই ঈশ্বরের সবচেয়ে বড় উপহার। আমার চোখ দিয়েও যেন কেউ পৃথিবীর আলো দেখতে পান।’’

মাধবন:

তথাকথিত ‘হিরো’ তকমা গায়ে না মেখে ঘুরলেও নিজের পরিচয় দিয়েছেন একজন অভিনেতা হিসেবেই। বড় পর্দায় যে কোনও চরিত্রেই সাবলীল তিনি। মাধবন চক্ষু দানে বেশি আগ্রহী। তা ছাড়াও অভিনেতা জানিয়েছেন, মৃত্যুর পর তিনি তাঁর হার্ট, ফুসফুস, কিডনি, লিভার, হাড় এবং তরুণাস্থিও দান করে যেতে চান।

সুনীল শেঠি:

চক্ষু দান করতে চান সুনীল শেঠি। তিনি বলেছেন, ‘‘আমাদের ধর্মবিশ্বাস মরণোত্তর অঙ্গদানে বিশ্বাসী নয়। কিন্তু, আমার মনে হয় এই কাজে আমরা লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবন বাঁচাতে পারি। ’’

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া:

বলিউড ছেড়ে হলিউডে পাড়ি হোক বা নিক জোনাসের সঙ্গে মুচমুচে প্রেমের গল্পে— প্রিয়াঙ্কা বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ার ট্রেন্ডিং টপিক। ভারতীয় সেনাবাহিনীর আয়োজিত ‘আর্মি অরগ্যান রিভাইভাল’-এর একটি ক্যাম্পে গিয়ে ‘পিগি চপস’ বলেছিলেন মৃত্যুর পর তিনি তাঁর সমস্ত অঙ্গই দান করে যেতে চান।

সালমন খান:

অভিনয়ের পাশাপাশি নানা সমাজসেবামূলক কাজেও জড়িত রয়েছেন বলিউডের ‘ভাইজান’। মরণোত্তর অঙ্গদান নিয়ে ভক্তদের উৎসাহ দিতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। ভাইজান জানিয়েছেন, তিনি তাঁর অস্থিমজ্জা (বোন ম্যারো) দান করে যেতে চান।

আমির খান:

অঙ্গদানের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন বলিউডের মিস্টার পারফেকশনিস্ট। আমির জানিয়েছেন, মানুষের সেবার জন্য তিনি তাঁর কিডনি, ফুসফুস, লিভার, হার্ট ও চোখ দান করে যেতে চান।

অমিতাভ বচ্চন:

একটি এনজিও-র সঙ্গে চুক্তি করে চক্ষুদানের বিষয়টি ইতিমধ্যেই পাকা করে ফেলেছেন বিগ-বি। তাঁর ফ্যানদেরও এই কাজে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করেছেন তিনি।

ফারাহ খান:

তিনি এক দিকে সফল কোরিওগ্রাফার, অন্য দিকে প্রযোজক, পরিচালক ও অভিনেত্রী। ফারাহ খানের গুণের শেষ নেই। ফারাহ জানিয়েছেন, পরিকাঠামো ও সচেতনতার অভাবে এ দেশে অঙ্গদান অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। তিনি তাঁর সব অঙ্গই দান করে যেতে চান বলে জানিয়েছিলেন ফারাহ।

রানি মুখার্জি :

চক্ষুদানের কথা আগেই জানিয়েছিলেন আদিত্য চোপড়া। এ বার স্বামীর পথেই হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আদিত্য-ঘরণী রানি মুখার্জি। একটি সাক্ষাৎকারে রানি জানিয়েছেন, তিনিও চক্ষুদানে খুবই আগ্রহী। এবং তাঁর ফ্যানদেরও এই কাজে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করেছেন তিনি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here