বিদ্রোহের আগুনে জ্বলে ওঠা সৌদি নারীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মানাহেল আল-ওতাইবি (বাঁয়ে) ও মাশায়েল আল-জালৌদের এসব ছবি এখন সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল

রিয়াদের রাস্তায় টপস-জিন্স প্যান্ট পরা সৌদি নারী! এ যেন কল্পনাকেও হার মানায়।

রক্ষণশীল দেশটিতে পরিবর্তনের যে হাওয়া চলছে, তার ধারাবাহিকতায় গত কিছুদিনে বোরকা ছাড়াই ক’জন সৌদি নারীর প্রকাশ্যে চলাফেরার দৃশ্য এখন ইন্টারনেটে সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

universel cardiac hospital

সাদা টপের উপরে কমলা জ্যাকেট, সাদা ট্রাউজার আর হাই হিলে রিয়াদের শপিং মলে মাশায়েল আল-জালৌদ কিংবা জিন্স পরা মানাহেল আল-ওতাইবিকে ‘বিদ্রোহী’ সৌদি নারী হিসেবে তুলে ধরেছে পাশ্চাত্যের গণমাধ্যম।

রক্ষণশীল সৌদি আরবে প্রকাশ্য রাস্তায় বের হতে হলে মেয়েদের কালো বোরখা পরা বাধ্যতামূলক। ধর্মীর প্রতীক হিসেবেই বিষয়টিকে দেখা হয়।

কিন্তু সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সলমন নারীর ক্ষমতায়নে যেসব পদক্ষেপ নিয়েছেন; তাই বোরকা ছাড়া বের হতে সাহসী করেছে মাশায়েল ও মানাহেলদের।

৩৩ বছর বয়সী মাশায়েল একটি সংস্থার মানব সম্পদ বিভাগে কাজ করেন। পাশাপাশি নিজের মতো করে চালিয়ে যাচ্ছেন মানবাধিকার রক্ষার লড়াই।

মাশায়েল ব্রিটিশ সংবাদপত্র মেট্রোকে বলেছেন, তিনি বোরকা পরা ছেড়ে দিয়েছেন। তবে পশ্চিমা পোশাকে তাকে শপিং মলে দেখে অনেকেই বাঁকা চোখে দেখছিলেন।

২৫ বছরের মানবাধিকারকর্মী মানাহেল গত চার মাস ধরে রিয়াদে বোরকা ছাড়াই বের হচ্ছেন।

এজন্য বিতর্কে পড়তে হলেও তার ভাষ্য, আমি স্বাধীনভাবে বাঁচতে চাই।

শেয়ার করুন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে