মধ্যপ্রাচ্যে নারী গৃহকর্মীদের নির্যাতন বন্ধে পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ

সংসদ প্রতিবেদক

নারী নির্যাতন
নারী নির্যাতন। প্রতীকী ছবি

সংসদীয় কমিটি মধ্যপ্রাচ্যে কর্মরত বাংলাদেশি নারীদের মধ্যে গৃহকর্মীরাই বেশি নির্যাতনের শিকার হন। এই নির্যাতন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে বলেছে ।

কমিটির বৈঠকে এ বিষয়ে পররাষ্ট্র এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়কে যৌথভাবে পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে।

আজ বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি মুহম্মদ ফারুক খানের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ, নাইম রাজ্জাক ও নিজাম উদ্দিন জলিল (জন) এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে সংসদীয় কমিটির সভাপতি ফারুক খান সাংবাদিকদের বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে নারী শ্রমিকদের নির্যাতনের বিষয়ে আলোচনা করেছি। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বর্তমানে ৬ লাখের বেশি নারীকর্মী বিদেশে আছেন। এরমধ্যে নির্যাতনের হার এক শতাংশেরও কম। তবে, আমরা বলেছি, সংখ্যায় যাই হোক, নির্যাতন বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। কোনো নারী নির্যাতনের শিকার হলে পররাষ্ট্র বা প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়কে বাদী হয়ে মামলা করতে হবে।

কমিটি সূত্র জানায়, তুলনামূলকভাবে পুরুষকর্মীদের চেয়ে নারীকর্মীরা বেশি রেমিট্যান্স পাঠান। যেখানে পুরুষরা তাদের আয়ের ৬০ শতাংশ রেমিট্যান্স পাঠান, সেখানে নারীরা পাঠান ৯০ শতাংশ। তবে ২৫ বছরের কম ও ৪৫ বছরের বেশি বয়সী নারীদের বিদেশ না পাঠানোর নিয়ম থাকলেও ১৪ বছরের শিশু ও ৬৫ বছর বয়সীদের পাঠানো হচ্ছে।

এ ধরনের অনিয়মের সঙ্গে জড়িত এজেন্সিগুলোকে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছে কমিটি। কমিটির পক্ষ থেকে বিদেশে প্রশিক্ষণগ্রহণকারী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ যথাযথভাবে কাজে লাগানোর পরামর্শ দেওয়া হয়।

শেয়ার করুন
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here