ডাকাতির মামলায় এসআই রাশেদ ২ দিনের রিমান্ডে

আদালত প্রতিবেদক

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) এসআই রাশেদুল আলমকে সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা ডাকাতির মামলায় দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

সাত দিনের রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে আজ সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম আশেক ইমাম এ রিমান্ডের আদেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওয়ারী থানার এসআই হারুন অর রশিদ এ রিমান্ড আবেদন করেন। যার ওপর শুনানি শেষে আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রাশেদুল আলম নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার ভুঁইঘর গ্রামের মো শহিদ উল্লাহর ছেলে। গত রোববার নারায়ণগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর মামলার বাদী শফিউল আলম আজাদ সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে তার বন্ধু গিয়াসউদ্দিন ও ভাগিনা মাহমুদুল হাসান মুন্নাসহ ঢাকা থেকে মামার বাড়ি মাদারীপুর যাচ্ছিলেন।

তারা রাজধানীর ওয়ারী থানা এলাকার টিপু সুলতান রোডে পৌঁছালে অজ্ঞাতনামা চার-পাঁচজন একটি সিলভার রঙের মাইক্রোবাসে এসে র‌্যাব পরিচয় দিয়ে বাদীর পেটে অস্ত্র ঠেকান। পরে তাদের সবাইকে গাড়িতে উঠিয়ে নেন অস্ত্রধারীরা। এরপর তাদের সবাইকে মুন্সীগঞ্জে নিয়ে হাত ও চোখ বেঁধে তাদের কাছে থাকা সাড়ে পাঁচ লাখ টাকাসহ অন্যান্য মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে নেয়।

ওই ঘটনায় সিঙ্গাপুর প্রবাসী শফিউল আলম আজাদ গত ১৮ ডিসেম্বর ওয়ারী থানায় এ মামলা দায়ের করেন। পরে বিভিন্ন সময় আসামি রিপন কাজী, মুক্তার হোসেন, আশিক ইকবাল, রাসেল আহমেদ ও শরিফুল ইসলাম গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। জবানবন্দিতে এ ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে এসআই রাশেদুল আলমের নাম উঠে আসে। এরপর তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে