প্রশান্ত হালদারসহ ২০ জনের সম্পদ-হিসাব-পাসপোর্ট জব্দের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

হাইকোর্ট
হাইকোর্ট। ফাইল ছবি

এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদারসহ (পিকে হালদার) ২০ জনের সম্পদ ও ব্যাংক হিসাব জব্দ এবং পাসপোর্ট আটকানোর নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের কোম্পানি (পিকে হালদারের দখলে থাকা) ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেডের স্বাধীন পরিচালক ও চেয়ারম্যান হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদকে নিয়োগ দিয়েছেন আদালত।

দুজন বিনিয়োগকারীর টাকা ফেরত-সংক্রান্ত এক আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি মোহাম্মদ খুরশিদ আলম সরকারের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শাহরিয়ার কবির।

যে ২০ জনের সম্পদ ও ব্যাংক হিসাব জব্দ এবং পাসপোর্ট আটকানোর আদেশ দেয়া হয়েছে তাদের মধ্যে পিকে হালদার ছাড়াও রয়েছেন এমএ হাসেম, জহিরুল আলম, বিষুদেব ব্যানার্জি, পাপিয়া ব্যানার্জি, মমতাজ বেগম, নওশেরুল ইসলাম, আনোয়ারুল কবির, প্রকৌশলী নুরুল কবির।

পিকে হালদার প্রথমে রিলায়েন্স ফাইন্যান্স এবং পরে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ছিলেন। এ দুই প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব পালনকালে তিনি ব্যাংকবহির্ভূত চার আর্থিক প্রতিষ্ঠান দখল করেন বলে অভিযোগ ওঠে। এরইমধ্যে একটি হলো ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্স সার্ভিস লিমিটেড। দখল করা প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণের নামে টাকা সরিয়েছেন বলেও অভিযোগ ওঠে।

সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, ওই চার প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অবস্থা এখন চরম খারাপ। একটি বিলুপ্তের পথে, বাকি তিনটিও গ্রাহকদের টাকা ফেরত দিতে পারছে না।

অন্যদিকে অবৈধ ব্যবসা ও কার্যক্রমের মাধ্যমে পৌনে ৩০০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে প্রশান্ত কুমার হালদারের বিরুদ্ধে গত ৮ জানুয়ারি মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here