শর্তসাপেক্ষে বাড়ল সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রের বাজেট

বিনোদন প্রতিবেদক

প্রত্যেক বছরেই সরকারের অনুদানে বেশ বেশ কিছু চলচ্চিত্র নির্মানের জন্য বাজেট ঘোষণা করা হয়।

সেই বাজেটের পরিমাণ নিয়ে অনুযোগ ছিলো নির্মাতাদের। অনেকেই বলতে একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য তা যথেষ্ঠ নয়। সার্বিক বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে এবার সরকারি অনুদানে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে বাজেট বাড়িয়েছে সরকার।

২০২০-২১ অর্থ বছরে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে এখন সর্বোচ্চ ৭৫ লাখ টাকা ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের অনুদান ১০ লাখ টাকা বাজেট নির্ধারণ করেছে সরকার।

সম্প্রতি এক নীতিমালা প্রকাশ করে এমন তথ্য জানিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়। অবশ্য সঙ্গে কয়েকটি শর্তও দেওয়া হয়েছে।

নীতিমালায় জানানো হয়েছে, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক একটি চলচ্চিত্রসহ ১০টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অনুদান দেওয়া হবে। অনুদানের চেক প্রাপ্তির ৯ মাসের মধ্যে চলচ্চিত্রের নির্মাণ কাজ শেষ করতে হবে। চলচ্চিত্রের ভাষা ও বিষয়বস্তু জেন্ডার সংবেদনশীল হতে হবে, ডিজিটাল ফরমেটে দৃশ্য ধারণ করতে হবে।

এই প্রথম নীতিমালায় শর্ত দেওয়া হয়েছে, অনুদান প্রাপ্ত চলচ্চিত্র নূন্যতম ১০টি সিনেমা হলে মুক্তি দিতে হবে। আরও এক নীতিমালায় জানানো হয়, ২০২০-২১ অর্থ বছরে একটি শিশুতোষ চলচ্চিত্রসহ ১০টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের প্রত্যেকটিতে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে।

এর আগে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সর্বোচ্চ ৬০ লাখ টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছিল। এবার বাড়লো ১৫ লাখ টাকা। নতুন নীতিমালার আলোকে খুব দ্রুত ১১ সদস্যের অনুদান কমিটি ও ৭ সদস্যের অনুদান বাছাই কমিটি গঠন করা হবে। ৩১ আগস্টের মধ্যে চলচ্চিত্রের গল্প, চিত্রনাট্য আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে তথ্য মন্ত্রণালয়।

শেয়ার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে