মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ২২০ অভিবাসী গ্রেফতার

প্রবাস ডেস্ক

মালয়েশিয়ায় আটক অভিবাসী
ফাইল ছবি

মালয়েশিয়ায় বছরের শুরুতেই ফের অভিযান চালিয়ে ৭৮ বাংলাদেশিসহ ২২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অবৈধ অভিবাসীদের নিজ দেশে ফিরতে ‘ব্যাক ফর গুড’ কর্মসূচির মেয়াদ শেষ হতে না হতেই এ অভিযান শুরু করেছে দেশটির সরকার।

২ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) ইমিগ্রেশন বিভাগের প্রধান দাতুক খায়রুল দাজাইমি দাউদ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২৪টি অভিযানে বিভিন্ন দেশের ১ হাজার ৮শ ৭১ জনকে আটক করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ২২০ জনকে গ্রেফতার করে অভিবাসন বিভাগ। গ্রেফতারদের মধ্যে ৭৮ জন বাংলাদেশি রয়েছে। বাকিরা বিভিন্ন দেশের নাগরিক।

মালয়েশিয়া সরকারের সাধারণ ক্ষমা কর্মসূচির আওতায় সুযোগ নিয়ে ইতোমধ্যেই বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের ১ লাখ ৯০ হাজার ৪ শত ৭১ জন দেশে ফিরে গেলেও, এখনও দেশটিতে অবৈধ অভিবাসী আটকে ব্যাপক অভিযান পরিচালনা করবে অভিবাসন বিভাগ।

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তান শ্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন সাংবাদিকদের বলেন, বিভিন্ন ধরনের সুযোগ দেয়ার কারণেই অবৈধ অভিবাসীদের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সরকার আর কোনো সুযোগ দিতে চায় না।

তিনি বলেন, ৫টি রূপরেখার ভিত্তিতে দেশজুড়ে অবৈধ অভিবাসী বিরোধী অভিযান পরিচালিত হবে। আর সেই অভিযানে যারা গ্রেফতার হবে তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবে সরকার।

অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে মালয়েশিয়া সরকার নতুন ৫টি কৌশল

১. প্রয়োগকৃত অভিযান পদ্ধতি, যা দেশব্যাপী অবৈধদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনার ক্ষেত্রে বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নকে নির্দেশ করে।

২. আইন প্রণয়ন ও প্রয়োগ নীতি, যা নতুন আইনের খসড়া প্রণয়ন এবং অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে প্রয়োগের নীতিগুলোর সমন্বয় সম্পর্কিত বাস্তবায়ন।

৩. প্রবেশপথ এবং বর্ডার নিয়ন্ত্রণ কৌশল, যা দেশের সীমানা এবং প্রবেশ পথগুলোর নিরাপত্তা নিয়ন্ত্রণ এবং পর্যবেক্ষণ কার্যক্রম সম্পর্কিত বাস্তবায়ন।

৪. বিদেশি নাগরিকদের সঙ্গে সম্পর্কিত নীতিগুলোর সমন্বয় পরিকল্পনার আওতায় ব্যবস্থাপনা কৌশল।

৫. মিডিয়া এবং প্রচার কৌশল, যা অবৈধদের বিষয়ে মিডিয়া কাভারেজ, প্রচার ও সচেতনতা প্রোগ্রাম।

তান শ্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন বলেন, মালয়েশিয়াতে অবৈধ অভিবাসী একটি জাতীয় সমস্যা, যা এখনও সম্পূর্ণভাবে মোকাবিলা করা সম্ভব হয়নি। এ সমস্যা স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে, যা শুধু জাতীয় ও সীমান্ত নিরাপত্তাকেই বিঘ্নিত করে না, বরং দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ওপরও ব্যাপক প্রভাব ফেলছে।

আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে অবৈধ শ্রমিক বা অভিবাসীদের তাড়িয়ে দেয়ার কথা ঘোষণা করে একটি বিবৃতি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তান শ্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন।

উল্লেখ্য, অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হওয়ার জন্য ২০১৭ সালে সুযোগ দেয় সরকার সরকার। এটা শেষ হয় ২০১৮ সালের ৩০ আগস্ট। এতে বৈধ হওয়ার সুযোগ পেয়ে বহু বাংলাদেশি নিবন্ধিত হয়েও প্রতারণার শিকার হয়েছেন। এরপর ২০১৯ সালের ১ আগস্ট থেকে অবৈধ অভিবাসীদের নিজ দেশে ফিরতে সরকার ‘ব্যাক ফর গুড’ কর্মসূচি চালু করে। আর এ কর্মসূচি শেষ হয়েছে গত ৩১ ডিসেম্বর।

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here